বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > একশো দিনের কাজ নিয়ে নয়া দাওয়াই মমতার, লাটসাহেব বলে কটাক্ষ রাজ্যপালকে
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

একশো দিনের কাজ নিয়ে নয়া দাওয়াই মমতার, লাটসাহেব বলে কটাক্ষ রাজ্যপালকে

  • একশো দিনের কাজের টাকা দিচ্ছে না কেন্দ্র। তাই কাজ করেও বকেয়া অর্থ পাচ্ছে না একশো দিনের কর্মীরা। এবার সমস্যা সমাধানে ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট ফান্ডের দাওয়াই দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রশাসনিক বৈঠক থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একশো দিনের কাজের টাকা নিয়ে ফের কেন্দ্রীয় সরকারকে তোপ দাগলেন। একশো দিনের কাজের টাকা দিচ্ছে না কেন্দ্র। তাই কাজ করেও বকেয়া অর্থ পাচ্ছে না একশো দিনের কর্মীরা। এবার সমস্যা সমাধানে ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট ফান্ডের দাওয়াই দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ঠিক কী বলেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী?‌ আজ, মঙ্গলবার প্রশাসনিক বৈঠক থেকে তিনি বলেন, ‘‌গরীব মানুষের টাকা আটকে রাখা ঠিক না। তাঁরা খাবে কী? কেন্দ্র টাকা না দিলেও এই মানুষগুলির প্রাপ্য মেটাতে হবে। চার মাস ধরে ১০০ দিনের কাজের সদস্যরা টাকা পায়নি। কারণ কেন্দ্রীয় সরকার এই প্রকল্পের টাকা দেয়নি। তার জেরে গরীব মানুষরা সমস্যায় পড়েছেন। তাই আমি একটি চিঠি লিখেছি।’‌

কী দাওয়াই দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়?‌ এদিন প্রশাসনিক বৈঠক থেকে তাঁর দাওয়াই, ‘‌আমি মুখ্যসচিবকে বলব তার নেতৃত্বে একটা কমিটি তৈরি করা হোক। ফলে কেন্দ্র টাকা না দিলেও যাতে ১০০ দিনের কাজের জন্য টাকা দিতে সমস্যা না হয় তার ব্যবস্থা করতে হবে। একটা ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট ফান্ড তৈরি করে কাজ করতে হবে। কারণ কাজ করার পর কাউকে টাকা দেওয়া হবে না সেটা একেবারেই ঠিক নয়। যখন কেন্দ্র দেবে তখন দেখা যাবে। এটা নিয়ে মুখ্যসচিবকে পরিকল্পনা করতে হবে।’‌

এখান থেকে ফের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়রকে ‘‌লাটসাহেব’‌ বলে কটাক্ষ করে বলেন, ‘‌মেদিনীপুর কলেজের ১৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে ইউনিটারি স্ট্যাটাস দেওয়ার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছিল কলেজ কর্তৃপক্ষ। ওই কলেজকে সেই স্ট্যাটাস দেওয়া হবে। বিধানসভায় বিল পাশের পর তা আবার লাটসাহেবের কাছে পাঠাতে হবে। তিনি সই করলে তারপরে হবে।’‌

বন্ধ করুন