বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > M‌amata Banerjee: এবার কেষ্টর জেলায় সফরে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী, অনুব্রতর অনুপস্থিতি কি ভাবাচ্ছে?

M‌amata Banerjee: এবার কেষ্টর জেলায় সফরে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী, অনুব্রতর অনুপস্থিতি কি ভাবাচ্ছে?

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সরকারি পরিষেবা প্রদান অনুষ্ঠান হতে পারে জেলায়। পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রাক্কালে এই জেলা সফর বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। তৃণমূলনেত্রী জেলায় থাকাকালীন স্থানীয় নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসতে পারেন। এরপর এখান থেকে নদিয়া যেতে পারেন তিনি। তবে সেই তারিখ এখনও চূড়ান্ত হয়নি। এই জেলা সফর নিয়ে দলের অন্দরেও চর্চা শুরু হয়েছে।

কেষ্ট এখন জেলে। পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রাক্কালে ছাড়া পাবেন কিনা সেটা হলফ করে কিছু বলা যাচ্ছে না। বরং ছাড়া না পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বীরভূমের ফল ভাল হয়েছে। কিন্তু পঞ্চায়েত নির্বাচনে সেই ধারা কি অব্যাহত থাকবে?‌ এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। কারণ এখানে অনুব্রত মণ্ডল ওরফে কেষ্ট জেলা সভাপতি থাকলেও এখন তিনি জেলে। গরুপাচার কাণ্ডে সিবিআই তাঁকে গ্রেফতার করেছে। এই অবস্থায় ভোটবাক্সে প্রভাব ফেলতে চাইছে বিজেপি। তাই এবার এখানে সফরে আসতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলে সূত্রের খবর।

আর কোথায় যাবেন তিনি?‌ তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে খবর, বীরভূমের পাশাপাশি নদিয়া জেলাতেও আবার যাবেন তিনি। কারণ এই জেলার ব্যাপারে খুব বেশি চিন্তিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ, এখানের নেতারা গোষ্ঠীকোন্দলে জড়িয়ে পড়েন। একজন অন্যজনকে মানেন না। তাই বারবার তাঁদের ডেকে বৈঠক করতে হয়েছিল তৃণমূল সুপ্রিমোকে। পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে নদিয়ায় গিয়ে ইতিমধ্যেই বৈঠক করে এসেছেন তৃণমূলনেত্রী। এবার সেখানের পরিস্থিতি কতটা বদলেছে সেটা সরেজমিনে দেখতে যাওয়ার কথা তাঁর।

কবে যাবেন মুখ্যমন্ত্রী জেলা সফরে?‌ নবান্ন সূত্রে খবর, আগামী ৩১ জানুয়ারি বীরভূম সফরে যেতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে গিয়ে প্রশাসনিক বৈঠক ডাকা হতে পারে বোলপুরে। এমনকী ১ ফেব্রুয়ারি সরকারি পরিষেবা প্রদান অনুষ্ঠান হতে পারে জেলায়। পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রাক্কালে এই জেলা সফর বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। তৃণমূলনেত্রী জেলায় থাকাকালীন স্থানীয় নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসতে পারেন। এরপর এখান থেকে নদিয়া যেতে পারেন তিনি। তবে সেই তারিখ এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ এই জেলা সফর নিয়ে দলের অন্দরেও চর্চা শুরু হয়েছে। আসলে সবাই তটস্থ। এই বিষয়ে দলের একাংশ সূত্রে খবর, জেলা সংগঠন নিয়ে অনুব্রত ছিলেন অদ্বিতীয়। গোটা জেলায় সংগঠনে তাঁর নিয়ন্ত্রণ ছিল। তাই এখানে এসে মুখ্যমন্ত্রী সবটা দেখতে চান। নদিয়া সফরেও তাঁর যাওয়ার কথা। এই দুই জেলায় সরাসরি নজর রাখতে চাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ সংগঠন মজবুত রাখা সবচেয়ে জরুরি। নিচুতলার সংগঠন, মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ নিবিড় থাকলে ভোট আসবেই। সেটাই নিশ্চিত করতে চাইছেন নেত্রী।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন