বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > College Admission 2021: কবে থেকে শুরু স্নাতক স্তরের ভরতি প্রক্রিয়া, ক্লাস কবে? কী কী নিয়ম থাকছে? জানুন
আগামী ২ অগস্ট থেকে শুরু হবে স্নাতক স্তরে ভরতির প্রক্রিয়ার অনলাইনে আবেদনের প্রক্রিয়া। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রবীন্দ্র জোশী/হিন্দুস্তান টাইমস)
আগামী ২ অগস্ট থেকে শুরু হবে স্নাতক স্তরে ভরতির প্রক্রিয়ার অনলাইনে আবেদনের প্রক্রিয়া। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রবীন্দ্র জোশী/হিন্দুস্তান টাইমস)

College Admission 2021: কবে থেকে শুরু স্নাতক স্তরের ভরতি প্রক্রিয়া, ক্লাস কবে? কী কী নিয়ম থাকছে? জানুন

  • স্নাতক স্তরের ভরতির প্রক্রিয়ার দিনক্ষণ এবং যাবতীয় নিয়ম দেখে নিন।

আগামী ২২ জুলাই প্রকাশিত হতে চলেছে উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল। তার দু'সপ্তাহের মধ্যেই শুরু হয়ে যাচ্ছে স্নাতক স্তরে ভরতির প্রক্রিয়া। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে এবারও যাবতীয় ভরতি প্রক্রিয়া হবে অনলাইনে। ভরতি প্রক্রিয়া চলাকালীন পড়ুয়াদের সশরীরে কলেজে উপস্থিত হতে হবে না।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উচ্চশিক্ষা দফতরের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়েছে, আগামী ২ অগস্ট থেকে শুরু হবে অনলাইনে আবেদন জানানোর প্রক্রিয়া। আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ভরতি প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে। তারপর আগামী ১ অক্টোবর থেকে শুরু হবে ক্লাস। তবে অনলাইন নাকি অফলাইনে ক্লাস হবে, সে বিষয়ে স্পষ্টভাবে কিছু জানানো হয়নি। একনজরে দেখে নিন স্নাতক স্তরের ভরতির প্রক্রিয়ার যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ তারিখ এবং নিয়মাবলী -

স্নাতক স্তরের ভরতির প্রক্রিয়া :

১) অনলাইন পোর্টাল চালু হওয়ার দিন (অনলাইনে আবেদন শুরুর দিন) - ২ অগস্ট, ২০২১।

২) অনলাইনে আবেদন জানানোর শেষ দিন - ২০ অগস্ট, ২০২১।

৩) মেধাতালিকা প্রকাশের সময়সীমা - আগামী ৩১ অগস্টের মধ্যে প্রকাশ করতে হবে।

৪) ভরতি সম্পূর্ণ করার সময়সীমা - আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ভরতি প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে হবে।

৫) ক্লাস শুরুর দিন - ১ অক্টোবর, ২০২১।

নিয়মবিধি :

১) মেধার ভিত্তিতে অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে হবে। ভরতি প্রক্রিয়ার সময় পড়ুয়াদের কাউন্সেলিং বা নথি যাচাইয়ের জন্য কলেজে ডাকা যাবে না। কলেজে সশরীরে উপস্থিত থাকার কোনও প্রয়োজন নেই।

২) অনলাইনে ভরতির প্রক্রিয়ার সময় তথ্য স্ক্যান বা আপলোডের জন্য আবেদনকারীদের থেকে কোনও টাকা নেওয়া যাবে না। কলেজের আবেদনপত্র বা প্রসপেক্টাস দেওয়ার জন্য কোনও অর্থ নেওয়া যাবে না বলে সাফ জানানো হয়েছে। গত বছরের মতোই আবেদনের ফি নেওয়া যাবে না। 

৩) ইমেল বা টেলিকমিউনিকেশনের মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থীদের সরাসরি জানাতে হবে। 

৪) অনলাইনে বা নির্দিষ্ট ব্যাঙ্কে ফি দিতে হবে। সেজন্য কলেজে যেতে হবে না। 

৫) যাচাইয়ের জন্য যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্কের হাতে তুলে দিতে হবে। মেধাতালিকার ভিত্তিতে ব্যাঙ্কে টাকা জমা দিতে হবে।

৬) অনলাইনে আবেদনের জন্য যাবতীয় নথি আপলোড করতে হবে। যদি প্রয়োজন হয়, তাহলে কলেজে ভরতির পর নথি যাচাই করা যাবে। অনলাইনের ফর্মের সঙ্গে নথির মিল না থাকলে ওই পড়ুয়ার ভরতি প্রক্রিয়া বাতিল করে দেওয়া হবে।

৭) সবপক্ষকে সরকারের যাবতীয় করোনাভাইরাস বিধি মেনে চলতে হবে।

বন্ধ করুন