বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > অনলাইনেই পঠনপাঠন, প্র্যাক্টিক্যাল সম্ভবত পরের সেমেস্টারে, সিদ্ধান্ত উপাচার্যদের
অনলাইনেই পঠনপাঠন, প্র্যাক্টিক্যাল সম্ভবত পরের সেমেস্টারে, সিদ্ধান্ত উপাচার্যদের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
অনলাইনেই পঠনপাঠন, প্র্যাক্টিক্যাল সম্ভবত পরের সেমেস্টারে, সিদ্ধান্ত উপাচার্যদের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

অনলাইনেই পঠনপাঠন, প্র্যাক্টিক্যাল সম্ভবত পরের সেমেস্টারে, সিদ্ধান্ত উপাচার্যদের

  • স্নাতক স্তরে যে সব কলেজে এখনও কিছু আসন ফাঁকা পড়ে আছে, সেগুলি পূরণের জন্য নতুন করে অনলাইনে ভরতির আবেদনের প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে।

করোনাভাইরাসের জেরে স্কুলের পাশাপাশি বন্ধ কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়। ভরসা অনলাইন পঠনপাঠন। উপাচার্যদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের রবিবারের বৈঠকে অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমেই কলেজের সমস্ত সেমেস্টারের পঠনপাঠন চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। 

কিন্তু শিক্ষক থেকে শিক্ষার্থী সকলেই প্রশ্ন তুলেছেন, তাহলে প্র্যাক্টিক্যাল ক্লাস কীভাবে হবে?শিক্ষা মহলের খবর, অনলাইনে প্র্যাক্টিক্যাল ক্লাস কী করে নেওয়া হবে, সেই প্রশ্ন শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে উপাচার্যদের বৈঠকে উঠেছিল। কিন্তু এই বিষয়ে আলোচনা তেমন এগোয়নি। 

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় অবশ্য নিজেদের মতো উপায় বের করার চেষ্টা করছে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় সোমবার নিজেদের অধীনস্থ কলেজগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে, অনলাইনে স্নাতক প্রথম সেমেস্টারের ক্লাস ১৬ ডিসেম্বর থেকে শুরু করতে হবে। কয়েকজন অধ্যক্ষ প্রস্তাব দেন, প্রথম সেমেস্টারে কোনও প্র্যাক্টিক্যাল ক্লাস না করিয়ে শুধু থিয়োরিটিক্যাল পাঠ্যক্রমের ভিত্তিতে পড়ানো হোক।

অনলাইনে ক্লাস শুরু করে দেওয়ার চিন্তাভাবনা চলছে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়েও। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাস জানিয়েছেন, ডিসেম্বরের মাঝামাঝি অনলাইনে ক্লাস শুরু করে দেওয়ার কথা ভাবছেন। তবে প্রথম সেমেস্টারের অনলাইন ক্লাসে প্র্যাক্টিক্যাল থাকবে না। পরের সেমেস্টারে তা করানো হবে। সূত্রের খবর, যাদবপুরে বিজ্ঞান শাখায় এখন অন্তর্বর্তী সেমেস্টারের যে সব ক্লাস চলছে, সেখানে থিয়োরিটিক্যালের পাশাপাশি প্র্যাক্টিক্যালের জন্য ডেটা দেওয়া হচ্ছে পড়ুয়াদের। ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে। মূলত বিজ্ঞান, ইঞ্জিনিয়ারিং, ফলিত কলা ইত্যাদি বিষয়ে প্র্যাক্টিক্যাল ক্লাস থাকে।

ম্যাকাউট বা রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে তৈরি হয়েছে ভার্চুয়াল ল্যাবরেটরি। উপাচার্য সৈকত মৈত্র জানান, প্র্যাক্টিক্যালের জন্য তাঁদের বিশেষ ভাবনা নেই। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সব্যসাচী বসু রায়চৌধুরী জানান, ‘ফলিত কলার পঠনপাঠনে প্র্যাক্টিক্যাল ক্লাস খুব গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে প্রথম সেমেস্টারে প্র্যাক্টিক্যাল ক্লাস রাখা সম্ভব হবে না বলেই মনে হচ্ছে।' তিনি বলেন, স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরে প্রথম সেমেস্টারের ক্লাস কবে চালু হবে, সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে তাঁরা সেটা স্থির করবেন। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দেবজ্যোতি কোনার জানান, স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের প্রথম সেমেস্টারের অনলাইন ক্লাস শুরুর দিনক্ষণ-সহ পুরো বিষয়ে আলোচনার জন্য তাঁরা আজ (মঙ্গলবার) বৈঠকে বসছেন।

শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে উপাচার্যদের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, স্নাতক স্তরে যে সব কলেজে এখনও কিছু আসন ফাঁকা পড়ে আছে, সেগুলি পূরণের জন্য নতুন করে অনলাইনে ভরতির আবেদনের প্রক্রিয়া শুরু করতে হবে। এই প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে আগামী ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে। তা নিয়ে উচ্চশিক্ষা দফতর এই বিষয়ে বিজ্ঞপ্তিও জারি করেছে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় তারপরেই ১৬ ডিসেম্বর থেকে অনলাইনে কলেজের প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরুর কথা জানিয়েছে। ১৬ ডিসেম্বরের পরে বারাসত রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক স্তরের ক্লাস শুরু হয়ে যাবে বলে জানা গিয়েছে।

বন্ধ করুন