বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Suvendu Adhikari: পয়গম্বর বিতর্কের মাঝেই শুভেন্দুকে হাওড়ায় না যাওয়ার ‘পরামর্শ’ কাঁথা থানার
রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Utpal Sarkar)

Suvendu Adhikari: পয়গম্বর বিতর্কের মাঝেই শুভেন্দুকে হাওড়ায় না যাওয়ার ‘পরামর্শ’ কাঁথা থানার

  • শনিবারই ফের হিংসা ছড়িয়ে পড়ে হাওড়ার বিভিন্ন এলাকায়। উলুবেড়িয়া সাবজিভিশনে জারি করা হয় ১৪৪ ধারা। সেখানে যেতে চেয়েও ‘গ্রেফতার’ হন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। এই আবহে আজকে হাওড়ায় যাওয়ার কথা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর।

গতকাল হাওড়ার হিংসা কবলিত পাঁচলায় গিয়েছিলেন বিজেপি সর্বভারতীয় সহসভাপতি দিলীপ ঘোষ। নির্বিঘ্নেই এলাকা পরিদর্শন করে চলে আসেন দিলীপ ঘোষ। তবে এরপর ফের হিংসা ছড়িয়ে পড়ে হাওড়ার বিভিন্ন এলাকায়। উলুবেড়িয়া সাবজিভিশনে জারি করা হয় ১৪৪ ধারা। সেখানে যেতে চেয়েও ‘গ্রেফতার’ হন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। এই আবহে আজকে হাওড়ায় যাওয়ার কথা বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর। এই আবহে তাঁকে হাওড়ায় যাওয়া থেকে বিরত থাকার ‘পরামর্শ’ দেওয়া হল পুলিশের তরফে। (হাওড়া হিংসা নিয়ে যাবতীয় লাইভ আপডেট পড়ুন এখানে)

আজ হিংসা কবলিত হাওড়ায় যাওয়ার কথা বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর। তবে হাওড়ার একাধিক জায়গায় ১৪৪ ধারা জারি থাকায় সেখানে শুভেন্দুকে না যাওয়ার জন্য ‘পরামর্শ’ দিল কাঁথি থানার পুলিশ। এদিকে শুভেন্দু অধিকারী এই হিংসার ঘটনায় রাজ্যের তৃণমূল সরকারকেই দুষছেন। গতকাল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিকে তোপ দেগে হিংসা নিয়ে টুইট করে জনগণকে শান্ত থাকার আহ্বান করেছিলেন। সেই টুইটকে রিটুইট করে বিরোধী দলনেতা পাল্টা মমতার সরকারের ঘাড়েই দোষ চাপান।

শুভেন্দু টুইট বার্তায় লেখেন, ‘ছেড়ে দিন, কঠোর ব্যবস্থা নেবেন আপনি, কেনো মিছে ধমক দিচ্ছেন! সবে কিছু দোকানপাট লুঠেছে, পার্টি অফিস, গাড়ি পুড়িয়েছে, বোম ছুঁড়েছে, থানায় পাথর মেরেছে, রেল স্টেশন ভাঙচুর করেছে। আপনিই তো বলেন ...লাথি খেতে হয়। বিজেপি কোনো পাপ করেনি, আপনার পাপের ফলে আজ ভুগতে হচ্ছে জনগণকে।’ শুভেন্দু আরও লেখেন, ‘আপনি সিএএ-এর ব্যাপারে ভুল বুঝিয়ে জনগণকে ক্ষিপ্ত করেছিলেন, উস্কানি দিয়ে পথে নামিয়েছিলেন। দাঙ্গাবাজদের সাহস যুগিয়েছেন আপনি। কোন মুখে কথা বলছেন? সায়নী ঘোষের পবিত্র শিবলিঙ্গ সম্বন্ধে কুরুচিকর মন্তব্যের বেলায় আপনি চুপ কেন? তখন ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত লাগে নি? ক্ষমতা আছে নিন্দা করার?’

বন্ধ করুন