বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পঞ্চায়েত ভোটে হিংসার শাস্তি লোকসভায় পেয়েছে তৃণমূল, মানলেন দলের কোচবিহারের সভাপতি
প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ তথা দলের কোচবিহার জেলা সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়। ফাইল ছবি
প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ তথা দলের কোচবিহার জেলা সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়। ফাইল ছবি

পঞ্চায়েত ভোটে হিংসার শাস্তি লোকসভায় পেয়েছে তৃণমূল, মানলেন দলের কোচবিহারের সভাপতি

  • ২০১৮–র পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৩৪ শতাংশ আসন জিতেছিল তৃণমূল। বিভিন্ন পঞ্চায়েত এলাকায় হিংসা, খুনোখুনি, বোমাবাজির অভিযোগ ওঠে শাসকদলের বিরুদ্ধে।

‘‌পঞ্চায়েত নির্বাচনে অনেক জায়গায় জোর জবরদস্তি ভোট নেওয়ার চেষ্টা হয়েছে।’‌ সোমবার ভরা সভায় দাঁড়িয়ে এ কথা স্বীকার করে নিলেন প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ তথা দলের কোচবিহার জেলা সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়। ২০১৮–র পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৩৪ শতাংশ আসন জিতেছিল তৃণমূল। বিভিন্ন পঞ্চায়েত এলাকায় হিংসা, খুনোখুনি, বোমাবাজির অভিযোগ ওঠে শাসকদলের বিরুদ্ধে। এতদিন এই নিয়ে সরব হতেন বিরোধী দলেরা। কিন্তু এবার ভোটে হিংসা এবং তার পরিণতি নিয়ে তৃণমূলের সমালোচনা করলেন দলেরই এক অন্যতম সদস্য।

এদিন কোচবিহারের গোপালপুরে এক জনসভায় পার্থপ্রতিম রায় বলেন, ‘‌‌পঞ্চায়েত নির্বাচনে অনেক জায়গায় জোর জবরদস্তি ভোট নেওয়ার চেষ্টা হয়েছে। আর এর শাস্তিও পেয়েছে তৃণমূল। মানুষ আমাদের প্রার্থীকে লোকসভা নির্বাচনে ভোট না দিয়ে শিক্ষা দিয়েছেন। অনেক নেতার খারাপ ব্যবহারে সাধারণ মানুষ ব্যথত হয়েছেন।’‌ ওই নেতাদের আর দলে রাখা হবে না বলে এদিন জানিয়ে দেন পার্থপ্রতিম।

উল্লেখ্য, গত লোকসভা নির্বাচনে পার্থপ্রতিম রায়কে দল মনোনয়ন করেনি। ওই কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয় বাম আমলের প্রাক্তন মন্ত্রী পরেশ রায়কে। কিন্তু তিনি প্রাক্তন তৃণমূল নেতা বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিকের কাছে বিপুল ভোটের ব্যবধানে হেরে যান। এর পর থেকে দলের ভেতরে গুঞ্জন ওঠে, বিজেপি–র দিকে ঝুঁকে রয়েছেন জেলা সভাপতি। যদিও এই অভিযোগ তিনি অস্বীকার করেছেন।

বন্ধ করুন