বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > গোষ্ঠীকোন্দলে জেরবার হয়ে রবির দেশে তৃণমূল ছাড়ার হিড়িক

গোষ্ঠীকোন্দলে জেরবার হয়ে রবির দেশে তৃণমূল ছাড়ার হিড়িক

নাককাটিগছ গ্রাম পঞ্চায়েত।

রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা কোচবিহারের পুরপ্রধান রবীন্দ্রনাথ ঘোষের খাসতালুক তুফানগঞ্জ। যদিও বুথ সভাপতিদের পদত্যাগ নিয়ে কিছু জানেন না রবিবাবু। তিনি মেতে রয়েছেন রাস মেলা নিয়ে।

দলের উর্ধ্বতন নেতৃত্বের মতবিরোধের জেরে কাজ করতে সমস্যা হচ্ছিল। তাই দল ছাড়লেন কোচবিহারের তুফানগঞ্জের একের পর এক তৃণমূল নেতা। দল ছাড়লেন তাদের অনুগামীরাও। এই ঘটনায় তৃণমূলকে আক্রমণ করেছে বিজেপি।

তুফাগঞ্জ বিধানসভার নাককাটিগছ গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের বুথ সভাপতি সঞ্জীব দাস বলেন, ‘আমাদের ওপরের নেতৃত্বের মতবিরোধের জেরে কাজ করতে পারছিলাম না। তাই আমি ও আমার পাশের বুথের বুথ সভাপতি সৌমিত্র কর্মকার তৃণমূল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিলাম। স্থানীয় তৃণমূল নেতাকর্মীরাও দল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’

রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা কোচবিহারের পুরপ্রধান রবীন্দ্রনাথ ঘোষের খাসতালুক তুফানগঞ্জ। যদিও বুথ সভাপতিদের পদত্যাগ নিয়ে কিছু জানেন না রবিবাবু। তিনি মেতে রয়েছেন রাস মেলা নিয়ে। তিনি বলেন, ‘এবিষয়ে আমি কিছু জানি না। দলীয় নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলব।’

এই ঘটনায় তৃণমূলকে আক্রমণ করেছে বিজেপি। তাদের দাবি, তৃণমূলের নীতি - আদর্শ বলে কিছু নেই। গোষ্ঠীকোন্দলই ওদের সম্বল। এভাবেই দলটা শেষ হয়ে যাবে। পঞ্চায়েত ভোটের মুখে অনেকে বুঝতে পারছে তারা টিকিট পাবে না। অনেকে আবার টিকিট বিক্রি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন। এসবের মধ্যে কিছু ভালো মানুষ আছেন, তারা তৃণমূল ছেড়ে বেরিয়ে আসছেন।

 

বন্ধ করুন