মৃত যুবক (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)
মৃত যুবক (ছবি সৌজন্য সংগৃহীত)

পুলিশের লাঠিতে মৃত্যু নয় সাঁকরাইলের যুবকের, বলছে মেডিকেল রিপোর্ট

  • লকডাউনের সন্ধ্যায় দুধ কিনতে বেরিয়েছিলেন দাবি মৃতের পরিবারের।

পুলিশের লাঠিতে নয়। বরং শারীরিক অসুস্থতার কারণে মৃত্যু হয়েছে সাঁকরাইলের যুবক লাল স্বামীর। মেডিক্যাল রিপোর্টে এমনই জানানো হয়েছে।

আরও পড়ুন : সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দোকানের সামনে চক দিয়ে দাগ কাটলেন মমতা, দেখুন ভিডিয়ো

যুবকের পরিবারের দাবি, বুধবার সন্ধ্যায় দুধ কিনতে বেরিয়েছিলেন লাল। সেই সময় বানিপুরের কাছে রাস্তার ভিড় সরাতে পুলিশ লাঠি চালায় বলে অভিযোগ। মৃতের স্ত্রী’র দাবি, জটলার মাঝে পড়ে লাঠির ঘায়ে আহত হন লাল। সেই অবস্থায় বাড়ি ফিরে আসেন তিনি। তারপর দ্রুত একটি স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন : Prime Minister Gareeb Kalyan Scheme: একজন ভারতীয়কেও অনাহারে থাকতে হবে না, আশ্বাস অর্থমন্ত্রীর

তবে প্রথম থেকেই লাঠি চালানোর অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছিলেন হাওড়া সিটি পুলিশের ডিসি (সাউথ) রাজ মুখোপাধ্যায়। তিনি দাবি করেছিলেন, আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন ওই যুবক। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তাঁর।

আরও পড়ুন : Prime Minister Gareeb Kalyan Scheme: করোনার থাবা থেকে আমজনতাকে বাঁচাতে নির্মলার ৮ পদক্ষেপ

পুলিশের দাবিকেই মান্যতা দিয়েছে মৃতের মেডিক্যাল রিপোর্ট। সেখানে পুলিশের লাঠির আঘাতের কোনও উল্লেখ নেই। রিপোর্টে জানানো হয়েছে, গত ১৪ দিন ধরে ক্রনিক ডায়েরিয়ায় ভুগছিলেন যুবক। হৃদরোগও ছিল। বাথরুমে আচমকা জ্ঞান হারিয়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

আরও পড়ুন : Covid 19 update: প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনায় বাড়ল মনরেগা কর্মীদের বেতন

যদিও মেডিক্যাল রিপোর্ট স্বীকার করতে নারাজ মৃতের পরিবার। একই বক্তব্য স্থানীয়দেরও।

বন্ধ করুন