বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > গভীর রাতে প্রতিবেশীর গুলিতে হাবরায় নিহত প্রৌঢ় দম্পতি
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

গভীর রাতে প্রতিবেশীর গুলিতে হাবরায় নিহত প্রৌঢ় দম্পতি

  • পরিবারসূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার গভীর রাতে বাড়ির বাইরে কোনও আওয়াজ পেয়ে দেখতে বেরোন লীলারানি দেবী। তখন তাঁকে গুলি করে আততায়ী। গুলি আওয়াজ শুনে ছুটে যান রামকৃষ্ণবাবু। তাঁকেও গুলি করে দুষ্কৃতী।

উত্তর ২৪ পরগনার হাবরায় প্রৌঢ় দম্পতিকে রাতের অন্ধকারে গুলি করে খুনের অভিযোগ প্রতিবেশী যুবকের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার রাতে হাবরার টুনিঘাটা এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। নিহত রামকৃষ্ণ মণ্ডল (৫৮) প্রাক্তন সেনাকর্মী। মৃত্যু হয়েছে তাঁর স্ত্রী লীলারানি দেবীরও (৫২)। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত তন্ময় বর। 

পরিবারসূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার গভীর রাতে বাড়ির বাইরে কোনও আওয়াজ পেয়ে দেখতে বেরোন লীলারানি দেবী। তখন তাঁকে গুলি করে আততায়ী। গুলি আওয়াজ শুনে ছুটে যান রামকৃষ্ণবাবু। তাঁকেও গুলি করে দুষ্কৃতী। দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। দু’জনেরই মাথায় গুলি লেগেছিল বলে জানা গিয়েছে। 

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, তন্ময় বর নামে বছর ছাব্বিশের ওই যুবকের সঙ্গে মণ্ডল পরিবারের বিবাদ বেশ পুরনো। পরিবারের এক তরুণীকে উত্যক্ত করত তন্ময়। সেই নিয়ে দুপক্ষের বেশ কয়েকবার বিবাদ হয়েছে। এমনকী তরুণীকে অপহরণের অভিযোগে তন্ময়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন রামকৃষ্ণবাবু। যুবকের বিরুদ্ধে ওই বাড়িতে অ্যাসিড হামলার অভিযোগও রয়েছে। রামকৃষ্ণবাবুর অভিযোগের ভিত্তিতে যুবক বেশ কিছুদিন জেলবন্দি ছিল। 

সম্প্রতি জেল থেকে ছাড়া পায় তন্ময়। এর পর রামকৃষ্ণবাবু ও তাঁর স্ত্রীকে খুনের হুমকি দিত সে। সেব্যাপারে হাবরা থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়েছিল। স্থানীয়দের দাবি, মঙ্গলবার রাতে গুলি চালিয়েছে তন্ময়ই। 

ঘটনার পর থেকে পলাতক তন্ময় বর। ওই ঘটনায় যুক্ত সন্দেহে সকালে ২ জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে হাবরা থানার পুলিশ। 

বন্ধ করুন