কলকাতা হাইকোর্ট। ফাইল ছবি
কলকাতা হাইকোর্ট। ফাইল ছবি

ভাটপাড়া তৃণমূলেরই জানিয়ে দিল আদালত, নতুন পুরপ্রধান কে, শুরু জল্পনা

  • বৃহস্পতিবার সেদিনের ভোটাভুটির রিপোর্ট ও ভিডিয়ো আদালতে পেশ করেন জেলাশাসক। আদালত ভোটাভুটিতে বৈধ ঘোষণা করায় ভাটপাড়ায় পুরপ্রধান নির্বাচনের তোড়জোড় শুরু করেছে বিজেপি।

ভাটপাড়া পুরসভায় মঙ্গলবারের আস্থা ভোটকে বৈধতা দিল কলকাতা হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার জেলাশাসকের পেশ করা রিপোর্ট খতিয়ে দেখে আদালত ভাটপাড়া পুরসভার আস্থা ভোটে শিলমোহর দেন বিচারপতি দীপঙ্কর দত্ত। ফলে ভাটপাড়ায় পুরপ্রধান নির্বাচনের তোড়জোড় শুরু করল তৃণমূল।

সংখ্যার লড়াইয়ে জয়ের পর এবার ভাটপাড়া পুরসভার আইনি লড়াইয়েও জয় হল তৃণমূলের। আদালতের নির্দেশে মঙ্গলবার যে আস্থা ভোট হয় তাতে হাজির ছিলেন না বিজেপি কাউন্সিলররা। তাই ফল যে নিরঙ্কুশ তৃণমূলের পক্ষে যেতে চলেছে তা স্পষ্ট ছিল। এদিন বন্ধ খামে আস্থা ভোটের রিপোর্ট জমা দেন জেলাশাসক। সেই রিপোর্ট খতিয়ে দেখে ভোটাভুটিকে বৈধতা দিয়েছে আদালত।

গত বৃহস্পতিবার ভাটপাড়ায় বিজেপি পুরবোর্ডের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনে তৃণমূল। শুক্রবার ভোটাভুটিতে দেখা যায় সেখানে হাজির নেই বিজেপির কোনও কাউন্সিলর। ভোটাভুটিতে ১৯-০ ভোটে জয়ী হয় তৃণমূল। কিন্তু তার কিছুক্ষণের মধ্যেই ওই আস্থা ভোটকে অবৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্ট।


আদালতের তরফে নির্দেশ জারি করে জানানো হয়। ফের করতে হবে ভাটপাড়ার আস্থা ভোট। ভোট পরিচালনা করবেন জেলাশাসক। গোটা ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া ক্যামেরাবন্দি করতে হবে। ভোটগ্রহণের সময় এলাকায় জারি করতে হবে ১৪৪ ধারা। সব নিয়ম মেনে মঙ্গলবার ফের আস্থাভোট হয় ভাটপাড়ায়। সেদিনও হাজির ছিলেন না বিজেপির কোনও কাউন্সিলর। নতুন করে ভোট হলেও ফল বদলায়নি ১৯-০ ভোটে জেতে বিজেপি।

বৃহস্পতিবার সেদিনের ভোটাভুটির রিপোর্ট ও ভিডিয়ো আদালতে পেশ করেন জেলাশাসক। আদালত ভোটাভুটিতে বৈধ ঘোষণা করায় ভাটপাড়ায় পুরপ্রধান নির্বাচনের তোড়জোড় শুরু করেছে বিজেপি। সম্ভবত আগামিকালই জারি হবে বিজ্ঞপ্তি।

লোকসভা ভোটে বারাকপুরে বিজেপি জয়ের পর নিজের খাসতালুক ভাটপাড়া পুরসভা দখল করেন অর্জুন সিং। ভাইপো সৌরভ সিংকে পুরপ্রধানের চেয়ারে বসান তিনি। তখন থেকেই ভাটপাড়া তৃণমূলের কাছে প্রেসটিজ ফাইট। সেই যুদ্ধে প্রাথমিকভাবে অর্জুন বাজি মাত করলেও নিজের গড় ফের দখল করল তৃণমূল।

বন্ধ করুন