বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পুরুলিয়ায় শিশুকন্যানে সূঁচ ফুটিয়ে খুনে মা ও তাঁর পুরুষসঙ্গী দোষী সাব্যস্ত
দোষী সাব্যস্ত মঙ্গলা গোস্বামী ও সনাতন গোস্বামী
দোষী সাব্যস্ত মঙ্গলা গোস্বামী ও সনাতন গোস্বামী

পুরুলিয়ায় শিশুকন্যানে সূঁচ ফুটিয়ে খুনে মা ও তাঁর পুরুষসঙ্গী দোষী সাব্যস্ত

  • পুলিশ এসে শিশুটিকে উদ্ধার করে দেবেন মাহাতো সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসরা জানান তার দেহে অন্তত ৭টি সূঁচ ফোটানো রয়েছে। এর পর বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ হয়ে শিশুটিকে নিয়ে আসা হয় কলকাতার SSKM হাসপাতালে।

পুরুলিয়ার মফস্বল থানা এলাকায় ৩ বছরের শিশুকন্যাকে সুচ ফুটিয়ে হত্যার ঘটনায় মা ও তাঁর পুরুষসঙ্গীকে দোষী সাব্যস্ত করল আদালত। ২০১৭ সালে ওই ঘটনার নৃশংসতায় গোটা রাজ্য শিউরে উঠেছিল। ৩ বছরের ওই শিশুকন্যাকে ৭টি সুচ ফুটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছিল মা মঙ্গলা গোস্বামী ও তাঁর পুরুষসঙ্গী সনাতন গোস্বমীর (ঠাকুর) বিরুদ্ধে। সোমবার এই মামলায় শাস্তি ঘোষণা করবে আদালত।

২০১৭ সালের ২০ জুলাই কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে মৃত্যু হয়েছিল ওই শিশুকন্যার। অস্ত্রপচার করে সূঁচ বার করেও তাঁকে বাঁচাতে পারেননি চিকিৎসকরা। তদন্তে উঠে আসে, শিশুটির মা মঙ্গলা তাঁর স্বামীর সঙ্গে থাকতেন না। ২০১৬ সাল থেকে সনাতন গোস্বামী নামে এক অবসরপ্রাপ্ত হোমগার্ডের সঙ্গে সহবাস করতেন তিনি। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়লেও তাকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে চাইছিলেন না তাঁর মা। প্রতিবেশীরা চাপ দিলে রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন তিনি। 

এর পরই মফস্বল থানায় খবর দেন প্রতিবেশীরা। পুলিশ এসে শিশুটিকে উদ্ধার করে দেবেন মাহাতো সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসরা জানান তার দেহে অন্তত ৭টি সুচ ফোটানো রয়েছে। এর পর বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ হয়ে শিশুটিকে নিয়ে আসা হয় কলকাতার SSKM হাসপাতালে। ১৮ জুলাই অস্ত্রোপচার করে সূচগুলি বার করেন চিকিৎসকরা। ২০ জুলাই মৃত্যু হয় শিশুটির।

 

বন্ধ করুন