বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ঠিক মতো খেতে দেয় না, করোনা হাসপাতাল থেকে পালালেন রোগী
তপসিখাতায় রাস্তায় বসে করোনা রোগী।
তপসিখাতায় রাস্তায় বসে করোনা রোগী।

ঠিক মতো খেতে দেয় না, করোনা হাসপাতাল থেকে পালালেন রোগী

  • কাতর আবেদন শুনে করোনা রোগীকে মাছ-ভাত রান্না করে খাওয়ালেন গ্রামবাসীরা

‘ঠিক মতো খেতে দেয় না করোনা হাসপাতালে’। তাই হাসপাতাল থেকে পালালেন এক করোনা রোগী। তাঁর করুণ আর্তিতে মাছ-ভাত এনে খাওয়ালেন স্থানীয়রা। আজব এই ঘটনা আলিপুরদুয়ারের তপসিখাতার করোনা হাসপাতালের। 

এদিনের নাটকের প্রধান চরিত্রের নাম হানিফ মহম্মদ (৪২)। গত ১৮ অগাস্ট জ্বর নিয়ে কালচিনির লতাবাড়ি হাসপাতালে চিকিৎসকা করাতে গিয়েছিলেন তিনি। করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসায় জয়গাঁর বাসিন্দা ওই ব্যক্তিকে পাঠানো হয় তপসিখাতার করোনা হাসপাতালে। সেখান থেকেই বৃহস্পতিবার সকালে পাঁচিল টপকে পালান তিনি। 

হানিফের দাবি, করোনা হাসপাতালে দুবেলা পেট ভরে খেতে দেওয়া হয় না। হাসপাতালের অদূরে এক ব্যক্তির বাড়িতে ঢুকে পড়েন তিনি। এর পর তাঁকে ঘিরে ফেলেন গ্রামবাসীরা। তখন গ্রামবাসীদের কাছে তাঁর অভিযোগ জানান তিনি। অভুক্ত করোনা রোগীকে সেখানেই মাছ-ভাত জোগাড় করে খাওয়ান গ্রামবাসীরা। 

এরই মধ্যে সেখানে পৌঁছন হাসপাতালের এক কর্মী। অভিযোগ তাঁকে মারধর করেন গ্রামবাসীরা। খবর যায় রোগীর বাড়িতে। সেখান থেকে তাঁর আত্মীয়রা হাসপাতাল থেকে রোগীকে বাড়ি নিয়ে যান। 

আলিপুরদুয়ারের সহকারী CMOH সুবর্ণ গোস্বামী বলেন, ‘এক ব্যক্তি পাঁচিল টপকে করোনা হাসপাতাল থেকে পালিয়েছেন বলে জানতে পেরেছি। ভবিষ্যতে এমন ঘটনা রুখতে করোনা হাসপাতালের নিরাপত্তা বাড়ানো হবে।’

 

বন্ধ করুন