বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > করোনা আক্রান্ত হয়ে সেফ হোমের ছাদ থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী আদিবাসী যুবক
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

করোনা আক্রান্ত হয়ে সেফ হোমের ছাদ থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী আদিবাসী যুবক

  • ভোর রাতে চিৎকার করতে করতে ছাদে চলে যান তিনি। সেখান থেকে ঝাঁপ দেন ওই ব্যক্তি। দোতলার ছাদ থেকে পড়ে গুরুতর আহত হন ওই যুবক।

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে শেষ রক্ষা হলেও দক্ষিণ দিনাজপুরের বুনিয়াদপুরে হল না। সেফ হোমের ছাদ থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হলেন এক করোনা রোগী। শনিবার বুনিয়াদপুরের বংশীহারি ITI-এর ছাদ থেকে ঝাঁপ দেন অজিত মাহাত (৪৩) নামে ওই ব্যক্তি। করোনা আক্রান্ত হওয়ায় তাঁকে রাখা হয়েছিল ITI-এ তৈরি সরকারি সেফ হোমে। 

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, গত ৫ অগাস্ট অজিতবাবুর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ ধরা পড়ে। বৃহস্পতিবার তাঁকে বংশীহারি ITI-এর সেফ হোমে আনা হয়। শুক্রবার থেকে অপ্রকৃতস্থের মতো আচরণ শুরু করেন তিনি। গভীর রাতে সারা সেফ হোমে দৌড়ে বেড়াতে থাকেন। বিভিন্ন দরজায় ধাক্কা দিতে থাকেন। ভোর রাতে চিৎকার করতে করতে ছাদে চলে যান তিনি। সেখান থেকে ঝাঁপ দেন ওই ব্যক্তি। দোতলার ছাদ থেকে পড়ে গুরুতর আহত হন ওই যুবক।

সকাল বেলা সেই খবর পেয়ে সেফ হোমে ছুটে আসেন তাঁর পরিজনতা। তখনও জ্ঞান ছিল অজিতের। পরিবারের লোকেদের সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। এর পর তাঁকে স্থানীয় রসিদপুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়। তাঁর দেহ বালুরঘাট সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। 

পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, অজিত মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। তাঁর ১৫ বছর ও ১০ বছরের ২টি ছেলে রয়েছে। সম্প্রতি করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবরে ভেঙে পড়েন তিনি। 

 

বন্ধ করুন