বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > উপনির্বাচন করাতে করোনা সংখ্যা কারচুপি, 'Non-MLA' মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ শুভেন্দর
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শুভেন্দু অধিকারী। (ছবি সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস এবং এএনআই)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শুভেন্দু অধিকারী। (ছবি সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস এবং এএনআই)

উপনির্বাচন করাতে করোনা সংখ্যা কারচুপি, 'Non-MLA' মুখ্যমন্ত্রীকে তোপ শুভেন্দর

  • উপনির্বাচন করাতে ছটফট করছেন 'Non-MLA' মুখ্যমন্ত্রী, তাই করোনা পরিসংখ্যানে কারচুপি করতে বলছেন, অভিযোগ শুভেন্দু অধিকারীর।

বাংলায় উপনির্বাচন করানোর দাবিতে বিগত বেশ কয়েক সপ্তাহ যাবত সুর চড়িয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচন কমিশনে গিয়েছে তৃণমূলের প্রতিনিধি দল। এই আবহে তৃণমূলের এই 'মরিয়া' ভাবকে কটাক্ষ করলেন শুভেন্দু অধিকারী। পাশাপাশি জুড়ে দিলেন এক বড় অভিযোগ। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা দাবি করেন যে উপনির্বাচন করাতেই নাকি রাজ্য সরকার কোভিড পরিসংখ্যানে কারচুপি করছে। সংক্রমণের সংখ্যা কম করে দেখাচ্ছে। তবে এর পাল্টা জবাবও দিয়েছে ঘাসফুল শিবির।

মঙ্গলবার দুর্গাপুরে বিক্ষোভ এক কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছিলেন বিরোধী দলনেতা। বিজেপির অভিযোগ, ডিপিএলের জমি বিক্রি করে দেওয়ার ষড়যন্ত্র করছে রাজ্য। এর প্রতিবাদে সভা করে গেরুয়া শিবির। সেখানেই শুভেন্দু বলেন, 'বিজেপি-কে ঠেকাতে জনসভা, মিছিল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। আবার সব জায়গায় বলে দিয়েছে, করোনার পজিটিভ রিপোর্ট কম করে দেখাতে হবে।'

শুভেন্দুর যুক্তি, 'ছটফট করছেন 'নন এমএলএ' মুখ্যমন্ত্রী। ৪ নভেম্বরের মধ্যে জিততে না পারলে মুখ্যমন্ত্রিত্ব খোয়াতে হবে। প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানির মালিক। আর তো কেউ নেই মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার মতো। একটাই পোস্ট। বাকি সব ল্যাম্পপোস্ট। তাই সব জায়গায় বলেছে, করোনা কম দেখাও। না হলে আমি আর মুখ্যমন্ত্রী থাকতে পারব না।' শুভেন্দু উত্তরাখণ্ডের উদাহরণ টেনে এনে বলেন, 'সংবিধানে ছয় মাসে জিতে আসার কথা বলা রয়েছে। কিন্তু তার পরে কী হবে লেখা নেই। উত্তরাখণ্ডে আমাদের নন এমএলএ মুখ্যমন্ত্রী ছিল। আমরা বদলে এমএলএ-কে মুখ্যমন্ত্রী করেছি। বিজেপি মানুষের স্বাস্থ্যের কথা আগে ভাবে।'

এদিকে শুভেন্দুর এহেন অভিযোগের প্রেক্ষিতে পালটা তোপ দেগেছেন তৃণমূলের মুখপাত্র তাপস রায়। তিনি সংবাদমাধ্যমকে এবিষয়ে বলেন, 'বিরোধী দলনেতা যে সুরে কথা বলছেন, তা শুনে কি তাহলে ধরে নেব যে নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত বিজেপি নেতারা নিচ্ছেন?'

বন্ধ করুন