বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ভারত বনধের প্রতিবাদ করায় পথচারীকে সপাটে চড় মেরে বিতর্কে জড়ালেন সিপিএম নেতা!
বাইক আরোহীকে চড় মারছেন সিপিএমের জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য পঙ্কজ রায় সরকার
বাইক আরোহীকে চড় মারছেন সিপিএমের জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য পঙ্কজ রায় সরকার

ভারত বনধের প্রতিবাদ করায় পথচারীকে সপাটে চড় মেরে বিতর্কে জড়ালেন সিপিএম নেতা!

  • দুর্গাপুরে ভারত বনধের দিন পথে বেরনো এক ব্যক্তিকে চড় মেরে বিতর্কে জড়ালেন সিপিএম নেতা।

কৃষকদের সমর্থনে এদিন পথে নামে বাম নেতা-কর্মীরা। রাজ্যের বহু জায়গায় রাস্তা অবরোধ করে বনধ সফল করার চেষ্টা করে সিপিএম সহ বাম দলগুলি। সেই মতো এদিন দুর্গাপুরেও পথ অবরোধ করে সিপিএম। এর জেরে ভোগান্তি পোহাতে হয় সাধারণ মানুষকে। তবে সেসবের তোয়াক্কা না করে জনসাধারণকে কাজে যাওয়া থেকে বাধা দিতে বদ্ধপরিকর ছিল বামেরা। এর প্রতিবাদ করলে এক বাইক আরোহীকে চড় খেতে হয় সিপিএম নেতার হাতে। দুর্গাপুরে ভারত বনধের দিন পথে বেরনো এক ব্যক্তিকে চড় মেরে বিতর্কে জড়ালেন সিপিএম নেতা। অভিযুক্ত নেতার নাম পঙ্কজ রায় সরকার। তিনি সিপিএমের জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য।

সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার ডাকা ভারত বনধের সমর্থনে পথে নামে সিপিএম কর্মী, সমর্থকরা। আর তাতেই ভোগান্তি সাধারণ মানুষের। এদিন দুর্গাপুরের কোকওভেন থানা এলাকায় বাঁকুড়া মোড় অবরোধ করে সিপিআইএম। সেখানে প্রধানমন্ত্রী মোদীর কুশপুতুল দাহ করা হয়। তবে পথ অবরোধকে কেন্দ্র করে পথচারীদের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়তে দেখা যায় বাম নেতাকর্মীদের। পুলিশের সামনেই এই ঘটনা ঘটে।

এদিন অবরোধের বিরোধিতা করলে সাধারণ মানুষের সঙ্গে বচসা শুরু হয় বাম নেতাদের। এরপর ধাক্কাধাক্কি শুরু হয় দুই পক্ষের। এরপরই বাইক আরোহীকে কষিয়ে চড় মারেন বামনেতা। এদিকে অভিযুক্ত বাম নেতা ঘটনায় অনুতপ্ত নন। বরং তিনি পথচারীদের সহনশীল হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।

ঘটনার প্রেক্ষিতে বাম নেতার বক্তব্য, 'আজকের বনধ ঘোষণা করা হয়েছিল অনেকদিন আগে। হঠাৎ করে ডাকা হয়নি এই বনধ। ফলে যাঁরা আটকে গিয়েছেন, তাঁদের সহনশীলতা দেখানো উচিত ছিল। আমরা কোথায় অবরোধ করব, তাও ঘোষিত ছিল। অনেকে উত্তেজনা তৈরির চেষ্টা করেছেন। তাতে তাঁরা সফল হননি।'

 

বন্ধ করুন