বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Cyclone Yaas: আজই ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হচ্ছে 'ইয়াস', মজুত আছে আরও শক্তিশালী হওয়ার রসদ
ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে 'ইয়াস'। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে 'ইয়াস'। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

Cyclone Yaas: আজই ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হচ্ছে 'ইয়াস', মজুত আছে আরও শক্তিশালী হওয়ার রসদ

  • বিজ্ঞানীদের মতে, আরও শক্তিশালী হওয়ার রসদ মজুত আছে 'ইয়াস'-এর কাছে।

ক্রমশ শক্তি বাড়াচ্ছে 'ইয়াস'। রবিবার রাতেই সেটি অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। আজ (সোমবার) সকালের মধ্যে যা ঘূর্ণিঝড়ের রূপ ধারণ করতে চলেছে। তারপর আগামী বুধবার (২৬ মে) সন্ধ্যায় অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় (ঘণ্টায় ঝড়ের গতিবেগ ১১৮ থেকে ১৬৬ কিলোমিটার) হিসেবে ওড়িশার পারাদ্বীপ এবং পশ্চিমবঙ্গের সাগরের মাঝখান দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করবে।

রবিবার রাত আড়াইটের বুলেটিনে মৌসম ভবনের তরফে জানানো হয়েছে, শেষ ছ'ঘণ্টায় আরও পশ্চিম এবং উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়েছে 'ইয়াস' এবং অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। আপাতত সেটি পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরের উপর অবস্থান করছে। পোর্ট ব্লেয়ারের উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমে ৬০০ কিলোমিটার, পারাদ্বীপের পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্বে ৫৪০ কিলোমিটার, বালাসোরের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্বে ৬৫০ কিলোমিটার এবং দিঘার দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্বে ৬৩০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে সেই অতি গভীর নিম্নচাপ। তা আরও উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হবে। তা আরও উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হবে। তারপর সোমবার সকালের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে সেটি। সেখান থেকে ইয়াস আরও শক্তিশালী হয়ে পশ্চিম ও উত্তর-পশ্চিমে অগ্রসর হবে। তারপর অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় হিসেবে বুধবার সন্ধ্যায় ওড়িশার পারাদ্বীপ এবং পশ্চিমবঙ্গের সাগরের মাঝখান দিয়ে স্থলভাগে আছড়ে পড়বে।

তবে বিজ্ঞানীদের মতে, আরও শক্তিশালী হওয়ার রসদ মজুত আছে 'ইয়াস'-এর কাছে। মৌসম ভবনে ঘূর্ণিঝড়ের দায়িত্বপ্রান্ত সুনীতা দেবী জানান, বঙ্গোপসাগরের উষ্ণ জলের প্রভাবে আরও কিছুটা শক্তিশালী হতে পারে 'ইয়াস'। তাই 'ইয়াস' যে আরও শক্তিশালী হয়ে উঠতে পারে, সেই সম্ভাবনা এই মুহূর্তে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তবে তুলনামূলকভাবে সমুদ্রের উপর কম থাকায় সেটি অত্যধিক প্রবল ঘূর্ণিঝড় বা সুপার সাইক্লোনে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা তেমন নেই। 

কত বেগে বইবে ঝড়?

আবহাওয়া অফিসের তরফে জানানো হয়েছে, সোমবার সন্ধ্যার পর থেকে ঘণ্টায় ৪০-৫০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। দমকা হাওয়ার বেগ পৌঁছে যেতে পারে ঘণ্টায় ৬০ কিলোমিটারে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ঘণ্টায় ৫০-৬০ কিলোমিটার বেগে বইতে পারে ঝড়। কখনও কখনও তা ঘণ্টায় ৭০ কিলোমিটার ছুঁয়ে ফেলতে পারে। বুধবার সকালে ঝড়ের বেগ আরও বেড়ে ৬০-৭০ কিলোমিটার হতে পারে। দমকা হাওয়ার বেগ পৌঁছে যেতে পারে ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটারে। তারপর ৯০-১০০ কিলোমিটার বেগে বইতে পারে ঝড়। যা সন্ধ্যা পর্যন্ত বাড়তে থাকবে। কখনও কখনও তা ঘণ্টায় ১১০ কিলোমিটার ছুঁয়ে ফেলতে পারে।

বৃষ্টিপাত :

মঙ্গলবার মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া এবং হুগলিতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হবে। বুধবার ঝাড়গ্রাম, মেদিনীপুর, দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি এবং কলকাতার কয়েকটি অংশে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে। নদিয়া, বর্ধমান, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূমে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা আছে। মালদহ, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং মুর্শিদাবাদের কয়েকটি জায়গায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

বন্ধ করুন