বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > স্বামী জেল খাটছে, বসিরহাটে খুন নৃত্যশিল্পী স্ত্রী, গ্রেফতার প্রেমিক
নৃত্যশিল্পীকে খুন করা হয়েছে।

স্বামী জেল খাটছে, বসিরহাটে খুন নৃত্যশিল্পী স্ত্রী, গ্রেফতার প্রেমিক

  • এই খুন হওয়া নৃত্যশিল্পীর স্বামী জেলে থাকায় নতুন প্রেম আসে জীবনে। যার পরিণতি খুন।

এক নৃত্যশিল্পীকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠল। এই অভিযোগ উঠেছে নৃত্যশিল্পীর প্রেমিকের বিরুদ্ধে। উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট থানার চাঁপাপুকুর পঞ্চাননতলা এলাকার ঘটনায় আলোড়ন পড়ে গিয়েছে। যদিও পুলিশ অভিযুক্ত নৃত্যশিল্পীর প্রেমিককে গ্রেফতার করেছে বলে খবর। এই খুন হওয়া নৃত্যশিল্পীর স্বামী জেলে থাকায় নতুন প্রেম আসে জীবনে। যার পরিণতি খুন।

ঠিক কী ঘটেছে বসিরহাটে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, আজ, রবিবার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় নৃত্যশিল্পী তসলিমা বিবির (২৬) দেহ। তসলিমা এই বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। তিনি বিভিন্ন এলাকায় মঞ্চে নাচ করতেন। তাঁর স্বামী মাদক পাচার করতে গিয়ে ধরা পড়ে জেলে রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে নতুন প্রেম ঘটে এক যুবকের সঙ্গে। তারপর রবিবার তসলিমার দেহ উদ্ধার হয়। দেহে আঘাতের চিহ্ন ছিল। উত্তর ২৪ পরগনার হিঙ্গলগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত মিঠুন বিশ্বাসকে।

পুলিশ সূত্রে খবর, এই মিঠুন বিশ্বাস নামে যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। দেগঙ্গার বাসিন্দা তসলিমার সঙ্গে হাসনাবাদ থানার নোয়াপাড়ার বাসিন্দা মতিন গাজির বিয়ে হয়েছিল। দু’‌বছর আগে বিয়ে হয়। কিন্তু মতিন গাজি মাদক পাচার করতে গিয়ে ধরা পড়ে। তাই সে জেলবন্দি। তখন থেকে মিঠুনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে তসলিমার। এমনকী নাচের মঞ্চে মিঠুনকে স্বামী হিসাবে পরিচয় দিতেন তসলিমা। কিন্তু এই ঘটনার পর চম্পট দেন মিঠুন। আর মিঠুনের মোবাইলের টাওয়ার লোকেশন দেখে তাকে হিঙ্গলগঞ্জ থেকে গ্রেফতার করা হয়।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ সূত্রের খবর, মিঠুনের সঙ্গে তসলিমার শারীরিক সম্পর্কও গড়ে উঠেছিল। বসিরহাটের চাঁপাপুকুরের পঞ্চাননতলায় বাড়ি ভাড়া নিয়ে লিভ ইন করতে শুরু করেন দু’জনে। অর্থের অভাবেই এই প্রেমকে স্বীকৃতি দিতে চেয়েছিল তসলিমা। বাড়ির মালিককে বলা হয়েছিল তারা বিবাহিত। তারপর এদিন বলা হয়, তসলিমা শৌচালয়ে পড়ে গিয়েছে। তাকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে। বাড়ির মালিকের সন্দেহ হওয়ায় তিনি উঁকি মেরে দেখেন তসলিমার ঝুলন্ত দেহ। তিনিই পুলিশে খবর দেন। ততক্ষণে তম্পট দেয় মিঠুন।

বন্ধ করুন