বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সকলেই ভেবেছিলেন দীঘায় বেড়াতে গিয়েছেন, সকাল হতেই পুকুরে ভেসে উঠল মৃতদেহ
পুকুর থেকে উদ্ধার হওয়া ব্যক্তির ছবি।

সকলেই ভেবেছিলেন দীঘায় বেড়াতে গিয়েছেন, সকাল হতেই পুকুরে ভেসে উঠল মৃতদেহ

  • ঘটনাটি পূর্ব বর্ধমানের খন্ডঘোষের শাঁকারী গ্রামের। মৃত ব্যক্তির নাম প্রশান্ত দাস।

গত তিনদিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন বছর আটচল্লিশের এক ব্যক্তি। সকলেই ভেবেছিলেন তিনি হয়তো দীঘায় বেড়াতে গিয়েছেন। কিন্তু, আজ সোমবার সকালে গ্রামের একটি পুকুর থেকে আচমকাই ভেসে উঠলো ওই ব্যক্তির মৃতদেহ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। মৃতদেহ পুকুরে ভেসে থাকতে দেখে সেখানে ভিড় জমান গ্রামবাসীরা। ঘটনাটি পূর্ব বর্ধমানের খন্ডঘোষের থানার শাঁকারী গ্রামের। মৃত ব্যক্তির নাম প্রশান্ত দাস।

মৃত ব্যক্তির পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিন দিন ধরে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। কয়েকদিন আগে পুকুরের পাড় থেকে তার জামা,প্যান্ট, মোবাইল এবং সাইকেল পাওয়া গিয়েছিল। কিন্তু, তাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যায়নি। অন্যদিকে, স্থানীয়দের একাংশ জানতে পেরেছিলেন তিনি যেখানে কাজ করছিলেন সেখানে দীঘা বেড়াতে যাওয়ার জন্য টাকা চেয়েছিলেন। এরপর পরিবারের তরফে খন্ডঘোষ থানায় নিখোঁজের ডায়েরি করা হয়। এলাকার বাসিন্দা রামকৃষ্ণ ধারা জানান, ‘আমরা প্রথম থেকে অনুমান করেছিলাম তিনি হয়তো কোনওভাবে স্নান করতে গিয়ে পুকুরের জলে ডুবে গিয়েছিলেন। কারণ তিনি বেশিরভাগ সময়েই নেশায় আসক্ত হয়ে থাকতেন।’

আজ সকালে শাঁকারী গ্রামের বোস পুকুরের জলে মৃতদেহ ভাসতে দেখেন এলাকাবাসীরা। তারাই খবর দেন থানায়। পরে পুলিশ এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায় মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। প্রাথমিকভাবে মৃতদেহে কোনও আঘাতের চিহ্ন খুঁজে পায়নি পুলিশ। পুলিশের অনুমান, জলে ডুবে যাওয়ার কারণেই হয়তো তার মৃত্যু হয়েছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসলে সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বন্ধ করুন