বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিবাহিত প্রেমিকের সঙ্গে দেখা করতে বেরিয়েছিল, জলাভূমি থেকে উদ্ধার হল কিশোরীর লাশ
জলাভূমি থেকে উদ্ধার হয়েছে কিশোরীর মৃতদেহ। প্রতীকী ছবি।

বিবাহিত প্রেমিকের সঙ্গে দেখা করতে বেরিয়েছিল, জলাভূমি থেকে উদ্ধার হল কিশোরীর লাশ

  • দিন সাতেক আগে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল সাইমা। দুজনের নাকি দেখাও হয়েছিল। কিন্তু তারপরেই রহস্য। দিনের পর দিন ধরে বাড়ি ফিরছিল না সাইমা।

গোটা ঘটনার পরতে পরতে রহস্য। দক্ষিণ ২৪ পরগনার উস্তির বাসিন্দা সাইমা খাতুন। ১৭ বছরের ওই কিশোরীর সঙ্গে শেরপুরের বাসিন্দা সাদ্দাম বেগের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কর্মসূত্রে দুবাইতে থাকত সাদ্দাম। মাঝেমধ্যে বাড়ি ফিরত। তবে ফোনেই চলত তাদের কথাবার্তা। সাদ্দাম বিবাহিত। দুই সন্তানও রয়েছে তার। তবুও সাইমার সঙ্গে সম্পর্ক চালিয়ে যাচ্ছিল সে। সেই সাদ্দামের সঙ্গে দেখা করার জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল সাইমা। কিন্তু আর বাড়ি ফেরা হল না। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, দিন দশেক আগে দুবাই থেকে ফিরে এসেছিল সাদ্দাম। এরপর সাইমার সঙ্গে দেখা করতে চায় সে। সেই মতো দিন সাতেক আগে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল সাইমা। দুজনের নাকি দেখাও হয়েছিল। কিন্তু তারপরেই রহস্য। দিনের পর দিন ধরে বাড়ি ফিরছিল না সাইমা। বহু জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও কিশোরীর খোঁজ মেলেনি। এরপর উস্তি থানায় অপহরণের অভিযোগ দায়ের করেন কিশোরীর পরিজনরা।

এরপর বৃহস্পতিবার বিকালে উস্তির কাছে শেরপুরের একটি জলাভূমি থেকে উদ্ধার হল কিশোরীর পচাগলা লাশ। অনুমান করা হচ্ছে তাকে কিছুদিন আগেই খুন করা হয়েছিল। তবে প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জেনেছে তার শরীরে বিশেষ কোনও আঘাতের চিহ্ন নেই। সেক্ষেত্রে কীভাবে তার মৃত্যু হল তা নিয়ে রহস্য দানা বেঁধেছে। তবে অনুমান করা হচ্ছে সাইমাকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছিল। এরপর তাকে জলাভূমিতে ফেলে দেওয়া হয়েছিল কি না তা পুলিশ খতিয়ে দেখছে। 

এদিকে অভিযুক্ত যুবকেরও কোনও খোঁজ মিলছে না। পুলিশ তার মোবাইলের সূত্র ধরে তার হদিশ পাওয়ার চেষ্টা করছে। 

বন্ধ করুন