বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাড়িতে কেউ নেই, দোলনা পেঁচিয়ে গেল গলায়, মর্মান্তিক পরিণতি হুগলির কিশোরীর
দোলনার ফাঁস লেগে মৃত্যু কিশোরীর (প্রতীকী ছবি)
দোলনার ফাঁস লেগে মৃত্যু কিশোরীর (প্রতীকী ছবি)

বাড়িতে কেউ নেই, দোলনা পেঁচিয়ে গেল গলায়, মর্মান্তিক পরিণতি হুগলির কিশোরীর

  • মাস তিনেক আগে মা সংসার ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। বাবাও বাড়িতে ছিলেন। একা ঘরে খেলছিল দুই বোন

ছোট্ট একরত্তি মেয়ে। অঙ্কিতা মান্না। বাড়ি হুগলির পোলবার সুগন্ধা গ্রাম পঞ্চায়েতের কামদেবপুর গ্রামে। দোলনার ফাঁস লেগে মৃত্য়ু হয়েছে কিশোরী অঙ্কিতার। দুই বোন অঙ্কিতা আর সঙ্গীতা। মেয়েদের খেলার জন্য খাটের উপর দোলনা করে দিয়েছিলেন তাদের বাবা। সোমবার সন্ধ্যায় বাড়িতে কেউ ছিল না। সেই সময় দোলনাতেই খেলছিল দুই বোন। বাসিন্দাদের ধারণা কোনওভাবে সেই দোলনার কাপড় কিশোরী অঙ্কিতার গলায় পেঁচিয়ে যায়। এরপর খাটের উপরই পড়ে যায় সে। এদিকে পাশের বাড়িতেই তাদের ঠাকুমা থাকন। নাতনিরা পড়াশোনা করছেন কি না তা দেখতে এসেছিলেন তিনি। তিনি দেখেন খাটের উপর অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে রয়েছে অঙ্কিতা। এরপর তাকে চুঁচুড়া ইমামবাড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। 

পরিবার সূত্রে খবর, ওই কিশোরীদের বাবা সন্দীপ মান্না দিনমজুরির কাজ করেন। মা মাস তিনেক আগে সংসার ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। সোমবার সন্ধ্যায় সন্দীপ বাড়িতে ছিলেন না। সেই সময় বাড়িতে নেমে এল বড় বিপর্যয়। ঘটনার খবর পেয়ে তাদের মা বাড়ি ফিরে আসেন। তিনি বলেন, খাটের সঙ্গে শাড়ি বেঁধে দোলনা করা হয়েছিল। সেটাই কোনওভাবে গলায় ফাঁস লেগে দমবন্ধ হয়ে যায়। এদিকে ঘটনার আকষ্মিকতায় ভেঙে পড়েছে গোটা পরিবার। অঙ্কিতাকে হারিয়ে শোকে পাথর হয়ে গিয়েছে পরিবারের সদস্যরা। বাসিন্দাদের দাবি, বাড়িতে কেউ থাকলে এত বড় অঘটন হত না। দড়ি, শাড়ি জাতীয় কোনও কিছু নিয়ে যাতে বাচ্চারা না খেলে সেব্যাপারে অভিভাবকদের সচেতন হওয়া দরকার।

 

বন্ধ করুন