বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > স্পিড বোটে ঘাটালে বন্যা দেখলেন দেব, শুকনো মুখে নায়কের দেখা পেলেন দুর্গতরা
ঘাটালে দেবকে দেখতে ভিড় বাড়ির বারান্দায়  (নিজস্ব চিত্র )
ঘাটালে দেবকে দেখতে ভিড় বাড়ির বারান্দায়  (নিজস্ব চিত্র )

স্পিড বোটে ঘাটালে বন্যা দেখলেন দেব, শুকনো মুখে নায়কের দেখা পেলেন দুর্গতরা

  • একেবারে যেন সিনেমার দৃশ্য। আমাজনের জঙ্গলে নয়, ঘাটালে স্পিড বোটে বন্যা দেখলেন সাংসদ দেব 

যেদিকে চোখ যায় শুধু ঘোলা জল। বাড়ির একতলা জলে ডুবে রয়েছে। জল কবে নামবে তা বুঝতে পারছেন না বাসিন্দারা। বাধ্য হয়ে বাড়ির ছাদে আশ্রয় নিয়েছেন কিছু বাসিন্দা। বেশির ভাগ মানুষ বাড়ি ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছেন ত্রাণ শিবিরে। বাসিন্দাদের অভিযোগ সরকারি সহায়তা বিশেষ মিলছে না। পানীয় জলও মিলছে না যথাযথ। ভয়াবহ অবস্থার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন বাসিন্দারা। এদিকে ভোটের আগে ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান রূপায়ন নিয়ে নানা প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সমস্যা মেটেনি আজও। এদিকে সোমবার দুপুরে সেই প্লাবিত ঘাটালে যান সাংসদ দেব। 

লাইফ জ্যাকেট পড়ে স্পিড বোটে চেপে বন্যা দেখেন তিনি। হাতজোড়ও করেন সাংসদ। ঘাটাল পুরসভার ২ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ড পরিদর্শন করেন তিনি। এদিকে শুকনো মুখেও এদিন দেবকে দেখে হাত নাড়ালেন এলাকার মহিলারা। একঝলক হাসলেনও। আসলে এত সংকটের মধ্যেও নায়ককে দেখে কিছুক্ষণের জন্য হলেও দুঃখ ভোলার চেষ্টা করেছিলেন অনেকেই। কিন্তু পরক্ষণেই বাস্তবের মাটিতে ফিরে আসেন তাঁরা। বাসিন্দাদের প্রশ্ন, বছরের পর বছর ধরে এই জলযন্ত্রণা চলছে। নেতারা সময় পেলে বন্যা দেখতে আসেন। কিন্তু সমস্যা কিছুতেই মেটেনি। এক দুর্গত মহিলা অঝোর ধারায় কাঁদছিলেন। তিনি বলেন, খুব সমস্য়ার মধ্যে রয়েছি। তবে আজ কিছু সরকারি সহায়তা পেয়েছি।

সাংসদ দেব বলেন, এই অবস্থায় কী করে কাটাবে মানুষগুলো। বাড়ি থেকে নামতে পারছে না। খুব খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। একটাই কথা মানুষের পাশে থাকতে হবে। বাচ্চাদের খাবারের জল দেওয়া, এই সব মানুষের কাছে আমরা যেন দ্রুত পৌঁছতে পারি। কিছু এলাকা থেকে জল নামলেও এখনও অনেক এলাকা জলমগ্ন। মুখ্যমন্ত্রী সকলকে বার্তা দিয়েছেন সকলে যাতে দুর্গতদের পাশে দাঁড়ান। 

 

বন্ধ করুন