বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ধূপগুড়িতে মানসিক ভারসাম্যহীন তরুণীকে ধর্ষণ, পুলিশ কাজ করছে না, অভিযোগ পরিবারের
ধূপগুড়ি থানা। ফাইল ছবি

ধূপগুড়িতে মানসিক ভারসাম্যহীন তরুণীকে ধর্ষণ, পুলিশ কাজ করছে না, অভিযোগ পরিবারের

  • গত ৩০ অগাস্ট নির্যাতিতার মা ধূপগুড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করে জানান, মেয়েকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করেছে এলাকারই এক যুবক। যার জেরে গর্ভবতী হয়ে পড়েছে তাঁর মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়ে।

ফের রাজ্যে ধর্ষণের ঘটনায় পুলিশি নিষ্ক্রয়তার অভিযোগ। টিটাগড়, বারাসতের পর এবার অভিযোগ জলপাইগুড়ির ধূপগুড়ি থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ করায় প্রতিবেশীদেরই পুলিশ চাপ দিচ্ছে বলে অভিযোগ। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পুলিশ সুপার।

গত ৩০ অগাস্ট নির্যাতিতার মা ধূপগুড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করে জানান, মেয়েকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করেছে এলাকারই এক যুবক। যার জেরে গর্ভবতী হয়ে পড়েছে তাঁর মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়ে। পরিবারের দাবি, অভিযোগ গ্রহণ করলেও পুলিশ এখনো অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। উলটে প্রতিবেশীরা পরিবারটির পাশে দাঁড়ানোয় তাদের হুমকি দিচ্ছে।

তোলাবাজির কারণে কেউ এখানে শিল্প স্থাপন করতে চান না, মমতাকে পালটা রাহুল সিনহার

নির্যাতিতার বাবা জানিয়েছেন, ‘পুলিশ কোনও কাজ করছে না। আসামী বাড়িতেই রয়েছে। কিন্তু তাকে তোলার নাম করছে না। উলটে আমাদের লোকজনদের হুমকি দিচ্ছেন ধূপগুড়ির ওসি সঞ্জয় তুঙ্গ।’

অভিযোগ অস্বীকার করে পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত বলেন, ‘অভিযোগ ভিত্তিহীন। তদন্ত চলছে। অভিযুক্ত পলাতক।’

বলে রাখি, জমি কেলেঙ্কারিতে সঞ্জয় তুঙ্গকে ২০২০ সালে ক্লোজ করেছিল প্রশাসন। পরে তাঁকে ধূপগুড়ির ওসির দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এই ঘটনায় পুলিশের তীব্র সমালোচনা করেছে বিজেপি। দলের জেলা সম্পাদক মাধবেন্দ্র রায় বলেন, ‘এই ওসি তৃণমূলের ব্লক সভাপতিকেও ছাপিয়ে গেছে। তৃণমূলকে বাঁচাতে চেষ্টার কোনও কসুর করছে না।’

 

বন্ধ করুন