বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কেষ্ট মণ্ডলকে খুশি করার চেষ্টা করছেন দিদি, কারণটাও জানিয়ে দিলেন অধীর

কেষ্ট মণ্ডলকে খুশি করার চেষ্টা করছেন দিদি, কারণটাও জানিয়ে দিলেন অধীর

অধীর চৌধুরী এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

অধীর চৌধুরী বলেন, কেষ্টা আর কিছু বলার চেষ্টা করিস না। সেকারণেই কেষ্টার হয়ে এত এত প্রশংসার বাণী। কারণ কেষ্টা কিছু বলার চেষ্টা করলে বড় বিপদ হয়ে যাবে। সেকারণে কেষ্টাকে খুশি রাখতেই হবে।

ফের বীরভূম জেলা তৃণমূলের ক্যাপ্টেনের দায়িত্ব পেয়েছেন অনুব্রত মণ্ডলই। গরু পাচারকাণ্ডে অভিযুক্ত হয়ে তিনি বর্তমানে জেলবন্দি।কিন্তু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের উপস্থিতিতে মিটিং করে সেই অনুব্রত মণ্ডলের উপরই আস্থা রেখেছে দল। শনিবার এনিয়ে কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী বলেন, চোর তো চোরকেই ভরসা করে। এক চোর বাইরে। এক চোর জেলে। দিদির বীর সেনা। তাকে চটালে ফাঁস করে দেবে অনেক কিছু। তাই তাকে বাঘ বানাতে হবে। তাকে সিংহ বানাতে হবে। বিস্ফোরক অধীর চৌধুরী।

তিনি বলেন, কিছু না। কেষ্টা আর কিছু বলার চেষ্টা করিস না। সেকারণেই কেষ্টার হয়ে এত এত প্রশংসার বাণী। কারণ কেষ্টা কিছু বলার চেষ্টা করলে বড় বিপদ হয়ে যাবে। সেকারণে কেষ্টাকে খুশি রাখতেই হবে। কেষ্টা পদ থেকে সরে না। পার্থ পদ থেকে সরে যায়। কেষ্টাকে বীর বলতে হয়। পার্থকে চোর বলতে হয়। তার কারণ একটাই কেষ্টা যদি ঢোল ফাটিয়ে দেয় তবে দিদির শেষটা আমরা দেখতে পারব। সেকারণেই কেষ্টাকে প্রশংসা করতে হবে, তাকে সভাপতি রাখতে হবে।

মিঠুন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তিনি একটি সিনেমা শিল্প করুন না। রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মুখ্য়মন্ত্রীর কি হঠাৎ করে আক্কেল দাঁত উঠেছে। অন্যদিকে কংগ্রেস নেত্রী সুব্রতা দত্তের বিতর্কিত বক্তব্য প্রসঙ্গে অধীর চৌধুরী বলেন, এই বক্তব্যের সঙ্গে সহমত পোষন করি না।

 

বন্ধ করুন