বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > আইনে আমাদের ভরসা রয়েছে, আদালত ডাকলে হাজিরা দিই, জামিন পেয়ে বললেন দিলীপ ঘোষ
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

আইনে আমাদের ভরসা রয়েছে, আদালত ডাকলে হাজিরা দিই, জামিন পেয়ে বললেন দিলীপ ঘোষ

  • ওই মামলায় গত ২৮ ফেব্রুয়ারি আদালতে চার্জশিট পেশ করে দিলীপ ঘোষকে ফেরার ঘোষণা করে পুলিশ। গত ১২ নভেম্বর দিলীপবাবুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত।

পুলিশের বিরুদ্ধে ‘আপত্তিকর’ মন্তব্য করার অভিযোগে দায়ের মামলায় বর্ধমান আদালত থেকে জামিন পেলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। জামিন নিতে বৃহস্পতিবার সশরীরে আদালতে হাজিরা দিতে হয় দিলীপবাবুকে। গত সপ্তাহে এই মামলায় দিলীপবাবুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিল আদালত। 

গত বছর নভেম্বরে বর্ধমানের রায়নায় এক জনসভায় দিলীপবাবু বলেন, ‘তাঁবেদারি না করলে পুলিসের চাকরি মেলে না। টাকা না দিলে পুলিসের চাকরি মেলে না। প্রমোশনের জন্যও টাকা দিতে হয়। এসপি থেকে ওসি পর্যন্ত সবাইকে টাকা তুলতে হয়।’ এর পরই দিলীপবাবুর বিরুদ্ধে পুলিশের ভাবমূর্তি নষ্টের অভিযোগ তুলে অভিযোগ দায়ের করেন এক পুলিশকর্মী। 

ওই মামলায় গত ২৮ ফেব্রুয়ারি আদালতে চার্জশিট পেশ করে দিলীপ ঘোষকে ফেরার ঘোষণা করে পুলিশ। গত ১২ নভেম্বর দিলীপবাবুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। এদিন আদালতে হাজিরা দিয়ে জামিনের আবেদন করেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি। ২০০০ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন পান তিনি। 

জামিন পেয়ে দিলীপবাবু বলেন, ‘আদালতের নির্দেশে হাজিরা দিয়েছি। আইনে আমাদের ভরসা রয়েছে। আদালত ডাকলে আমরা সব সময় হাজিরা দিই।’ 

বলে রাখি, গত সপ্তাহে দিলীপবাবুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। বিজেপির আইনজীবীর দাবি, অভিযুক্তেকে কোনও নোটিশ না পাঠিয়েই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত। একই অভিযোগে সরব হন দিলীপবাবুও। এমনকী গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর এক জনসভায় তিনি ফের বলেন, ‘ঘুষ না দিলে পুলিশে চাকরি হয় না। আবার বললাম, আবার মামলা করো।’

 

বন্ধ করুন