বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > জেতার জন্য ঝাঁপাতে হবে পঞ্চায়েত নির্বাচনে, দলীয় কর্মীদের ভোকাল টনিক দিলেন দিলীপ
প্রতীকি ছবি।  (PTI)
প্রতীকি ছবি।  (PTI)

জেতার জন্য ঝাঁপাতে হবে পঞ্চায়েত নির্বাচনে, দলীয় কর্মীদের ভোকাল টনিক দিলেন দিলীপ

  • পালটা তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসার রাজনীতির অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, ‘তৃণমূল পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার করে ভয় দেখিয়ে কিছু মানুষকে তাদের দলে যেতে বাধ্য করছে। এভাবে কিছু পঞ্চায়েতের দখল নিয়েছে তারা।

লোকসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে পঞ্চায়েত নির্বাচনে দলীয় কর্মীদের কোমর বেঁধে ঝাঁপানোর নির্দেশ দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রবিবার নিজের লোকসভা কেন্দ্রে দলের কর্মীদের ভোকাল টনিক দেন তিনি। সঙ্গে প্রতিহিংসার রাজনীতির বাণে পালটা তৃণমূলকে আক্রমণ করেন তিনি।

রবিবার মেদিনীপুরে ২টি বৈঠক করেন দিলীপবাবু। প্রথম বৈঠকে দলের জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে মিলিত হন তিনি। দ্বিতীয় বৈঠকে কথা বলেন দলের নেতাদের সঙ্গে। সেখানেই পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করতে নির্দেশ দেন তিনি।

দিলীপবাবু বলেন, ‘পঞ্চায়েত নির্বাচনে জেতার জন্য লড়তে হবে। গতবার আমরা পঞ্চায়েত সমিতির আসন জিতলেও জেলা পরিষদের আসন জিততে পারিনি। এবার জেলা পরিষদের আসনও জিততে হবে।’

পালটা তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসার রাজনীতির অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, ‘তৃণমূল পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবহার করে ভয় দেখিয়ে কিছু মানুষকে তাদের দলে যেতে বাধ্য করছে। এভাবে কিছু পঞ্চায়েতের দখল নিয়েছে তারা। তবে মোটের ওপর আমাদের কর্মীরা আমাদের সঙ্গেই রয়েছেন।’

সঙ্গে ত্রিপুরা নিয়েও তৃণমূলকে বিঁধেছেন তিনি। দিলীপবাবু বলেন, ‘ত্রিপুরায় তৃণমূলের লোকেরা নাটক করছে। ওখানকার মানুষ তা বুঝতে পারছে। ওখানে তৃণমূলের নেতা-মন্ত্রীদের পাইলট কার ও নিরাপত্তা দিয়েছে রাজ্য সরকার। এখানে সাংসদ হিসাবে ২ বছর হয়ে গেলেও এখনো পাইলট কার পেলাম না। এতেই বোঝা যায় গণতন্ত্রের কোথায় কী অবস্থা।’

 

বন্ধ করুন