বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > একদা বলেছিলেন, CPM-কে সাপের মতো মারুন, আজ বললেন, দিলীপের AIIMS-এ চিকিৎসা দরকার
রবিবার বিকেলে গোবরডাঙায় জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক
রবিবার বিকেলে গোবরডাঙায় জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক

একদা বলেছিলেন, CPM-কে সাপের মতো মারুন, আজ বললেন, দিলীপের AIIMS-এ চিকিৎসা দরকার

  • ক্ষমতায় আসার পর এক সভায় খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেছিলেন, ‘সিপিএমের সঙ্গে মিশবেন না। বিয়ে বাড়তে দেখা হলে পাশে বসবেন না। সিপিএমকে গোখরো সাপের মতো পিটিয়ে মারুন।’

এক সময় তাঁর মন্তব্যে নিন্দার ঝড় উঠেছিল রাজ্যজুড়ে। ক্ষমতায় এসে ‘সিপিএমকে গোখরো সাপের মতো পিটিয়ে মারুন’ বলে মন্তব্য করেছিলেন তিনি। এবার বিজেপি নেতাদের চিকিৎসা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করলেন সেই জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। রবিবার উত্তর ২৪ পরগনার গোবরডাঙায় এক সভা শেষে এমনই দাবি করেছেন তিনি। 

ক্ষমতায় আসার পর এক সভায় খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেছিলেন, ‘সিপিএমের সঙ্গে মিশবেন না। বিয়ে বাড়তে দেখা হলে পাশে বসবেন না। সিপিএমকে গোখরো সাপের মতো পিটিয়ে মারুন।’ ‘বদলা নয়, বদল চাই’ স্লোগান দিয়ে ক্ষমতায় এসে হিংসায় প্ররোচনা কেন? প্রশ্ন উঠেছিল তখন, সেই মন্তব্যের জন্য আজও ক্ষমা চাননি জ্যোতিপ্রিয়বাবু। যদিও তাঁর দাবি, দিলীপ ঘোষ ও সায়ন্তন বসুর চিকিৎসা প্রয়োজন।

বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সম্প্রতি বলেছেন, 'বদল চাই। বদলাও চাই। দিলীপকে ছাপিয়ে গিয়ে বিজেপির আর এক নেতা সায়ন্তন বসু থানা জ্বালিয়ে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। দিলীপের বিতর্কিত এই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে জ্যোতিপ্রিয় বলেন, 'ওঁর শিক্ষাগত যোগ্যতার অভাব আছে। ওঁর সম্পর্কে বিশেষ কিছু বলব না। শুধু এটুকুই বলব, বাংলার সংস্কৃতিতে এসব চলবে না। কোনও দায়িত্বশীল রাজনীতিবিদ এমন কথা বলতে পারেন না।' সায়ন্তন সম্পর্কে আলাদা করে জ্যোতিপ্রিয় বিশেষ কিছু বলেননি। কেবল বিজেপির দুই নেতাকে কটাক্ষ করে খাদ্যমন্ত্রী বলেছেন, 'ওঁরা অশিক্ষিত। ওদের দিল্লির এইমস হাসপাতালে চিকিৎসা করানো দরকার।'

বলে রাখি, বিধানসভা নির্বাচন যত এগোচ্ছে ততই বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তাপ। আর বিভিন্ন জায়গায় সংঘর্ষে জড়াচ্ছে বিজেপি ও তৃণমূল। এই পরিস্থিতিতে সম্প্রতি ‘বদলাও চাই, বদলও চাই’ স্লোগান তোলেন দিলীপ ঘোষ। বিজেপির রাজ্য সভাপতির দাবি, ‘যারা আজ বিজেপি কর্মীদের ওপর অত্যাচার করছে, আমরা ক্ষমতায় এলে কাউকে ছাড়ব না।’ দিলীপবাবুর এহেন মন্তব্যে রাজ্যজুড়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। তাঁর দলের অন্দরেই তাঁর মন্তব্যকে সমর্থন করেননি অনেকে। যদিও তাতে কিছু যায় আসে না দিলীপবাবুর। রবিবারও তিনি সাফাই দিয়ে বলেছেন, ‘আক্রমণ করলে পালটা জবাব দেবই। ক্ষমা করে কাপুরুষরা’

 

বন্ধ করুন