বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ, ভাসুরকে ধারালো অস্ত্রের কোপ শিক্ষিকার!
সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ, মদ্যপ ভাসুরকে ধারাল অস্ত্রের কোপ বৌমার: ছবি (‌স্ক্রিন শর্ট)‌
সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ, মদ্যপ ভাসুরকে ধারাল অস্ত্রের কোপ বৌমার: ছবি (‌স্ক্রিন শর্ট)‌

সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ, ভাসুরকে ধারালো অস্ত্রের কোপ শিক্ষিকার!

  • দুই পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ চলছিল। মদ্যপ ভাসুরকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে কোপানোর অভিযোগ উঠল বৌমার বিরুদ্ধে। পাল্টা ভাসুরের লাঠির আঘাতে আহত হলেন ওই গৃহবধূও।

দুই পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ চলছিল। তা নিয়ে রক্তারক্তি কাণ্ড ঘটে গেল বাড়ির ভিতরে। মদ্যপ ভাসুরকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে কোপানোর অভিযোগ উঠল বৌমার বিরুদ্ধে। পাল্টা ভাসুরের লাঠির আঘাতে আহত হলেন ওই গৃহবধূও। মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগরের গুমার খ্রিস্টান পাড়ায়। দু’পক্ষের এই টানাপোড়েনের জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। ওদিকে অস্ত্রের আঘাতে অচৈতন্য হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ভাসুর। আহত অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে অশোকনগর ঈশ্বরী গাছা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে, বারাসত হাসপাতালে পাঠানো হয়। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, সুদীপবাবুর মাথায় ১১ টি সেলাই পড়েছে। প্রচুর রক্তপাতও হয়েছে।

অন্য দিকে, রক্তাক্ত অবস্থায় রেবাদেবীকে হাবড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয় তাঁকে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘটনায় আহত হয়েছেন সুদীপ দাস নামের ওই ব্যাক্তি। আহতের পরিবার বেরা সর্দার (দাস) নামের স্কুল শিক্ষিকার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগের ভিত্তিতে গোটা ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তবে, প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের অনুমান, পারিবারিক অশান্তির জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে।

বধূর অভিযোগ, তিনি কোপ মারেননি। অপ্রকৃতস্থ অবস্থায় তাকে শ্লীলতাহানি করার হুমকি দিচ্ছিলেন ভাসুর। এমনকী, তাঁকে মারধরও করেন ওই ব্যক্তি বলে অভিযোগ বধূর। তাঁর দাবি, নিগ্রহের হাত থেকে বাঁচতে ভাসুরকে ধাক্কা মেরেছিলেন। তাতেই পড়ে গিয়ে আহত হয়েছেন তিনি।

আহত ওই ব্যক্তির বাড়ির লোকেদের অভিযোগ, বেরার স্বামী কর্মসূত্রে ভিনরাজ্যে থাকেন। আর এখানে সম্পত্তির লোভে নিজের ভাসুরকে কুপিয়ে খুন করার চেষ্টা করেছেন তিনি। তাঁদের আরও অভিযোগ, এর আগেও একাধিকবার ওই গৃহবধূ সুদীপকে কোপানোর চেষ্টা করেছেন। এমনকী, কোনও আত্মীয়-স্বজনকে ওই বাড়িতে ঢুকতে দিতেন না বেরা বলে অভিযোগ । এই গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে অশোকনগর থানার পুলিশ।

 

বন্ধ করুন