বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'লক্ষ্মীর ভাণ্ডার'-এর ফর্ম অন্য কারও থেকে নেবেন না, দুর্নীতি রুখতে বার্তা মমতার
নবান্ন (‌ছবি সৌজন্য টুইটার)‌
নবান্ন (‌ছবি সৌজন্য টুইটার)‌

'লক্ষ্মীর ভাণ্ডার'-এর ফর্ম অন্য কারও থেকে নেবেন না, দুর্নীতি রুখতে বার্তা মমতার

প্রত্যেকটি ফর্মের উপর ‘‌কম্পিউটার জেনারেটেড ইউনিক নম্বর’‌ দেওয়া থাকবে।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ঘোষণা হতেই জেলায় জেলায় টাকার বিনিময় আবেদনপত্র দেওয়ার হিড়িক পড়ে গিয়েছিল। অভিযোগ উঠেছিল, সাধারণ মানুষের কাছে টাকার বিনিময় লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম বিক্রি করা হচ্ছে। এবার লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের ফর্ম নিয়ে দুর্নীতি রুখতে কড়া পদক্ষেপ নিল রাজ্য সরকার। তারইমধ্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আর্জি জানিয়েছেন, শুধুমাত্র দুয়ারে সরকার শিবির থেকে ফর্ম মিলবে। অন্য কারও থেকে ফর্ম নেবেন না।

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, দুর্নীতি রোধ করতে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ করা হয়েছে। যাতে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের এই ফর্ম কেউ নকল না করতে পারে, সেজন্য কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে নবান্ন। এমনকী এই সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে কেউ যদি কোনও সমস্যায় পড়েন, সেক্ষেত্রে অভিযোগ জানানোর জন্য হেল্পলাইন নম্বরও চালু করেছে রাজ্য।‌সেই হেল্পলাইন নম্বরটি হল, ১০৭০-২২১৪৩৫২৬‌।

নবান্নের তরফে জানানো হয়েছে, সরকারের কাছে এই সংক্রান্ত বিষয়ে বেশ কয়েকটি অভিযোগ জমা পড়েছে। অভিযোগ এসেছে যে, বহু জায়গায় টাকার বিনিময় ফর্ম বিক্রি করা হচ্ছে। অভিযোগ পাওয়ামাত্রই জেলাশাসকদের সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার।

এই বিষয়ে নবান্নের তরফে একটি নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। একইসঙ্গে জেলাশাসকদেরও সতর্ক করা হয়েছে। জারি হওয়া সেই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, দুয়ারে সরকার শিবিরেই লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম পাওয়া যাবে। তার জন্য পৃথক কাউন্টার তৈরি করা থাকবে। সুনির্দিষ্ট কাউন্টার থেকেই ফর্ম তুলতে হবে উপভোক্তাদের। তারপর দুয়ারে সরকারের শিবিরেই বসে ফর্ম পূরণ করে পুনরায় সেই কাউন্টারে গিয়ে জমা দিতে হবে। শুধু তাই নয়, কোনওভাবেই যাতে উপভোক্তারা প্রতারণার শিকার না হন, সেজন্য প্রত্যেকটি ফর্মের উপর ‘‌কম্পিউটার জেনারেটেড ইউনিক নম্বর’‌ দেওয়া থাকবে। আবার ফর্ম প্রতি সেই ইউনিক নম্বর সংরক্ষিত থাকবে সরকারি আধিকারিকদের কাছেও। যাতে আধিকারিকরা আবেদনপত্র আসার সঙ্গে সঙ্গে তা মিলিয়ে নিতে পারেন। তাছাড়া এই প্রক্রিয়ায় জাল করার কোনও সম্ভাবনাও না থাকে, ‌তাও নিশ্চিত করা হবে। সে কারণে কেউ যদি অন্য কোনও জায়গা থেকে ফর্ম পূরণ করেন, তাহলে তাঁরা লক্ষ্মীর ভান্ডারের সুবিধা পাবেন না।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ফর্ম শুধুমাত্র দুয়ারে সরকার শিবিরেই পাওয়া যাবে। দুয়ারে সরকার ক্যাম্প থেকে পাওয়া সেই আবেদনপত্র পূরণ করলে, তবেই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া যাবে। বাইরে থেকে কেউ যদি কোনও ফর্ম পূরণ করেন, তাহলে সেটা গ্রহণ করা হবে না বলে জানানো হয়েছে।

বন্ধ করুন