বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাগদায় মাদক পাচারকারীকে ধরতে গিয়ে আক্রান্ত BSF, মহিলা কনস্টেবল সহ আহত চার জওয়ান

বাগদায় মাদক পাচারকারীকে ধরতে গিয়ে আক্রান্ত BSF, মহিলা কনস্টেবল সহ আহত চার জওয়ান

সীমান্তে সদা সতর্ক বিএসএফ জওয়ান (ANI photo) (ANI )

গন্ডগোলের খবর পেয়ে বাগদা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ও বিএসএফের বাহিনী ঘটনাস্থলে যায়। তারাই আহত জওয়ানদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করে। এদিকে ধৃতকে ছাড়িয়ে নিয়ে যেতে বর্ডার আউটপোস্টেও হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা।

মাদক পাচারকারীকে ধরতে গিয়ে বিএসএফের উপর হামলা। বাগদার নওদা পাড়ায় বিএসএফের উপর হামলার অভিযোগ। আহত হয়েছেন চারজন বিএসএফ জওয়ান। লাঠি পাথর নিয়ে বিএসএফের উপর হামলা হয় বলে খবর। সূত্রের খবর, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে এক পাচারকারীকে ধরতে গিয়েছিলেন বিএসএফের জওয়ানরা। আর অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে আনার পথে মামা ভাগিনা এলাকায় তাদের উপর হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ।

সূত্রের খবর, অভিযুক্ত আলমগীর মণ্ডলকে খুঁজছিল নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো। গোপন সূত্রে বিএসএফের কাছে খবর আসে, তার বাড়িতে মাদক মজুত করা আছে। আরও দুটি বাড়িতে মাদক মজুত করা ছিল বলে অভিযোগ। এরপরই কোম্পানি কমান্ডার বাগদা থানায় খবর দেন। তারপর রাতে তল্লাশিতে নামেন জওয়ানরা। আলমগীরের বাড়ি থেকে ৪৩ কেজি গাঁজা ও ৩৭১ বোতল ফেনসিডিল বাজেয়াপ্ত করা হয়। আলমগীরকেও আটক করা হয়। আর তাকে আউটপোস্টে নিয়ে আসায় সময়তেই জওয়ানদের উপর হামলা চালানো হয়।

এক বিএসএফ আধিকারিক জানিয়েছেন, জেরায় জানা গিয়েছে, আলমগীর ৬ বছরের বেশি সময় ধরে এই পাচারের সঙ্গে যুক্ত। এর আগে তাকে গ্রেফতার করা যায়নি। এনসিবি কলকাতার হাতে তাকে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। ঠিক কী হয়েছিল ঘটনাটি?

বিএসএফের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, তাকে গ্রাম থেকে বর্ডার আউটপোস্টের দিকে নিয়ে আসা হচ্ছিল। সেই সময় লাঠি, পাথর নিয়ে বিএসএফের জওয়ানদের উপর হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। এরপর বিএসএফ পালটা প্রতিরোধ গড়ে তোলে। তখনই পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। মনে করা হচ্ছে হামলাকারীরা আলমগীরের সঙ্গী।

এদিকে দুষ্কৃতীরা মামা-ভাগিনা বর্ডার আউটপোস্টেও হামলা চালায়। সিসি ক্যামেরা ভেঙে দেওয়া হয়েছে। এদিকে জখম জওয়ানদের বাগদা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে একজনের অবস্থার অবনতি হওয়াতে তাকে কলকাতার হাসপাতালে রেফার করা হয়।

এদিকে গন্ডগোলের খবর পেয়ে বাগদা থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ও বিএসএফের বাহিনী ঘটনাস্থলে যায়। তারাই আহত জওয়ানদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করে। এদিকে ধৃতকে ছাড়িয়ে নিয়ে যেতে বর্ডার আউটপোস্টেও হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। এর জেরে চরম উদ্বেগ ছড়িয়েছে।

তবে শেষ পর্যন্ত পুলিশ ও বিএসএফের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এসেছে। এদিকে বিএসএফের উপর হামলার জেরে ও সরকারি সম্পত্তি ক্ষতিগ্রস্ত করা হয়েছে এই অভিযোগে বাগদা থানায় দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

 

বন্ধ করুন