বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ডিলারদের আপত্তিতে কর্ণপাত নয় রাজ্যের, পুজোর মাসেও চালু থাকবে দুয়ারে রেশন
বাড়ির দুয়ারের কাছেই কার্যত উঠে এল রেশন দোকান (নিজস্ব চিত্র)
বাড়ির দুয়ারের কাছেই কার্যত উঠে এল রেশন দোকান (নিজস্ব চিত্র)

ডিলারদের আপত্তিতে কর্ণপাত নয় রাজ্যের, পুজোর মাসেও চালু থাকবে দুয়ারে রেশন

পুজোর পরে ১৭ অক্টোবর থেকে শুরু হবে দুয়ারে রেশন প্রকল্পের কাজ।

পুজোর মাসে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রীর কাছে দুয়ারে রেশন প্রকল্প বন্ধ রাখার অনুরোধ করেছিলেন রেশন ডিলাররা। কিন্তু সরকার তা মানতে রাজি হয়নি। সরকারের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, পুজোর মাসে অর্থাৎ অক্টোবরে আচদিন দুয়ারে রেশন প্রকল্প চালু থাকবে। ইতিমধ্যে রাজ্যে গত ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে পরীক্ষামূলকভাবে এই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। তাই পুজোর মাসে সাধারণ মানুষের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দিতে এই প্রকল্পে কোনও বিরাম চাইছে না সরকার।

রাজ্যের খাদ্য দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, পুজোর পরে ১৭ অক্টোবর থেকে শুরু হবে দুয়ারে রেশন প্রকল্পের কাজ। এরপর ২১, ২২, ২৪, ২৬ ও ২৯ অক্টোবর এই দুয়ারে রেশন প্রকল্পের কাজ চলবে। এই প্রসঙ্গে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ জানিয়ে দিয়েছেন, সরকার আগে থেকেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যে দুয়ারে রেশন প্রকল্পের কাজ থামানো যাবে না। ডিলারদের যাতে কোনও সমস্যা না হয়, তাই পুজোর দিনগুলিকে বাদ দিয়ে দুয়ারে রেশনের জন্য দিনগুলিকে স্থির করা হয়েছে। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, পরীক্ষামূলকভাবে এই প্রকল্প শুরু হওয়ার পরে এখনও পর্যন্ত ১৫ শতাংশ রেশন ডিলারকে এই প্রকল্পের আওতায় আনা সম্ভব হয়েছে। পুজোর মাসে আরও ৩৫ শতাংশ রেশন ডিলারকে এই প্রকল্পের আওতায় আনা সম্ভব হবে। আগামী নভেম্বর মাসে রাজ্যের সব রেশন ডিলারকেই দুয়ারে রেশন প্রকল্পের মধ্যে নিয়ে আসা সম্ভব হবে।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে রেশন ডিলারদের তরফে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানানো হয়েছিল, পুজোর মাসে দোকানে কর্মীরা আসতে চান না। তাই রেশন দোকান মারফত এই প্রকল্পের কাজ চালাতে সমস্যা হবে। অক্টোবর মাসে অন্তত এই দুয়ারে রেশন প্রকল্পের কাজ বন্ধ রাখা হোক। রেশন ডিলাররা অনুরোধ জানালেও রাজ্য সরকার অবশ্য এই কথায় রাজি হয়নি।

বন্ধ করুন