বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > জমির কী অবস্থা? দেখতে গিয়ে বর্ধমানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু কৃষকেরে
 বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু কৃষকের । (প্রতীকী ছবি)
 বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু কৃষকের । (প্রতীকী ছবি)

জমির কী অবস্থা? দেখতে গিয়ে বর্ধমানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু কৃষকেরে

বিদ্যুৎ দফতরের তরফে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলে আড়াই ঘণ্টা পর বিক্ষোভ উঠে যায়।

চাষের জমিতে ছিঁড়ে পড়া তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল এক বৃদ্ধ কৃষকের। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের নবস্থায়। পুজোর মুখে এই ধরনের ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আছে। স্থানীয় মানুষের মধ্যে ক্ষোভেরও সৃষ্টি হয়। মৃত কৃষকের পরিবারের সদস্যদের ক্ষতিপূরণের দাবিতে বিক্ষোভ দেখান স্থানীয় বাসিন্দারা।

জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে চাষের জমিতে যেতে পারছিলেন না সুকান্ত বাগ নামে এক কৃষক। গত শুক্রবার চাষের জমিতে কাজ করতে যান তিনি। তিনি যখন চাষের জমিতে গিয়েছিলেন, তখন সেখানে কিছুটা হলেও জল জমে ছিল। জলের মধ্যেই পড়ে ছিল ছেঁঁড়া বিদ্যুতের তার। অজান্তেই বিদ্যুতের তারে পা দিয়ে ফেলেন ওই কৃষক। সঙ্গে সঙ্গে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন তিনি। এলাকার বাসিন্দারা খোঁজাখুজি শুরু করার পর ওই কৃষককে চাষের জমিতে পড়ে থাকতে দেখেন। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ ও বিদ্যুৎ দফতরের আধিকারিকদের খবর দেওয়া হয়। কিছুক্ষণের মধ্যে এলাকার পুলিশ এসে পৌঁছোলেও বিদ্যুৎ দফতরের আধিকারিকরা হাজির হতে পারেননি। তাঁদের আসতে আসতে রাত হয়ে যায়। ততক্ষণে সুকান্তের মৃত্যু হয়েছে।

এরপরই বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে সুকান্তের দেহকে উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, বিদ্যুৎ দফতরের আধিকারিকরা যদি ঠিক সময়ে আসতেন, তাহলে সুকান্তকে বাঁচাতে পারত। বিক্ষোভকারীরা জানান, মৃত কৃষকের পরিবারের সদস্যকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। ক্ষতিপূরণ না দেওয়া হলে বিক্ষোভ তোলা হবে না। বিদ্যুৎ দফতরের তরফে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলে আড়াই ঘণ্টা পর বিক্ষোভ উঠে যায়।


বন্ধ করুন