বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Hasnabad: স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ, জামাইকে মারধর করে মেয়েকে ছিনিয়ে নিয়ে গেলেন শ্বশুর
স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে। ছবিটি প্রতীকী।
স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে। ছবিটি প্রতীকী।

Hasnabad: স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ, জামাইকে মারধর করে মেয়েকে ছিনিয়ে নিয়ে গেলেন শ্বশুর

  • এমনই অভিযোগ উঠেছে বসিরহাটের হাসনাবাদের গোবিন্দপুর গ্রামে। মারধর করার পাশাপাশি শশুর বাড়ির সদস্যরা সোনার গয়না এবং নগদ টাকা লুঠ করেছেন বলে অভিযোগ ওই ব্যক্তির। পুরো ঘটনায় পাঁচজন আহত হয়েছে। স্থানীয় হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা করা হয়।

১৫ বছর আগে বিয়ে হয়েছিল তাদের। তারপরেও বিভিন্ন বিষয়কে কেন্দ্র করে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ ছিল নিত্য সঙ্গী। তার জেরে স্বামীকে ব্যাপক মারধর করলেন শ্বশুরবাড়ির সদস্যরাও। আক্রান্তের নাম দেবব্রত সর্দার। শুধু তাই নয়, নিজেদের মেয়েকে ছিনিয়ে নিয়ে বাড়ি চলে গেলেন দেবব্রতর শ্বশুর বাড়ির সদস্যরা। এমনই অভিযোগ উঠেছে বসিরহাটের হাসনাবাদের গোবিন্দপুর গ্রামে। মারধর করার পাশাপাশি শশুর বাড়ির সদস্যরা সোনার গয়না এবং নগদ টাকা লুঠ করেছেন বলে অভিযোগ ওই ব্যক্তির। পুরো ঘটনায় পাঁচজন আহত হয়েছে। স্থানীয় হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা করা হয়।

পুলিশ এবং পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, দেবব্রত স্ত্রীর নাম মৌমিতা সর্দার। মৌমিতার বাপের বাড়ির সদস্যদের অভিযোগ, তাদের মেয়েকে দীর্ঘদিন ধরে মারধর করছিলেন জামাই। এই নিয়ে গ্রামে বেশ কয়েকবার সালিশি সভাও বসেছিল। কিন্তু, তাতে কোনও সমাধান হয়নি। দেবব্রতর অভিযোগ, তার শ্বশুরবাড়ি থেকে ২৫ জন লোক তার বাড়িতে এসে লোহার রড, শাবল প্রভৃতি দিয়ে তার ওপর চড়াও হয় এবং তার বাড়ির লোকজনদের মারধর করে। তার ১৪ বছরের ছেলে অপূর্ব সর্দারকেও মারধর করা হয়েছে। এরপর তার স্ত্রীকে বাড়ি নিয়ে যান শ্বশুরবাড়ির সদস্যরা। এ নিয়ে প্রতিবাদ করলে তাকে আরও মারধর করা হয়।

এছাড়াও, দাদা এবং ভাইকে মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন দেবব্রত। তারপর বাড়ি ভাঙচুর করে সোনার গয়না সহ লক্ষাধিক টাকা লুঠ কতেন শ্বশুর বাড়ির সদস্যরা। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন গৃহবধূর বাপের বাড়ির সদস্যরা। আহতদের তাক হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়।

বন্ধ করুন