বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বেসরকারি হাসপাতালগুলি অবহেলা না করলে মৃত্যু কম হত : মমতা
নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্য ফেসবুক Mamata Banerjee)
নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্য ফেসবুক Mamata Banerjee)

বেসরকারি হাসপাতালগুলি অবহেলা না করলে মৃত্যু কম হত : মমতা

  • ‘আমি দুঃখিত’, বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বেসরকারি হাসপাতালগুলির ভূমিকা নিয়ে আবারও অসন্তোষ প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আক্ষেপ প্রকাশ করে জানালেন, বেসরকারি হাসপাতালগুলির অবহেলায় বাংলায় বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। নয়তো আরও কিছু মানুষের জীবন বাঁচানো যেত। 

বুধবার নবান্নে সর্বদলীয় বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যদি আরও একটু ভালো চিকিৎসা দেওয়া হত, তাহলে আমরা আরও কিছু জীবন বাঁচাতে পারতাম। বেসরকারি হাসপাতালগুলি কোভিড-১৯-এর চিকিৎসায় বেশি নজর দিয়েছিল এবং হৃদরোগ এবং কিডনির সমস্যার মতো করোনাভাইরাস রোগীদের কো-মরবিড অবস্থাকে অবহেলা করেছে। ফলস্বরূপ কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। আমি দুঃখিত। এই বিষয়ে হাসপাতালগুলিকে নির্দেশিকা পাঠাচ্ছে সরকার।’

পশ্চিমবঙ্গে এখনও পর্যন্ত ৫৯১ জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ৪৩৭ জন (৭৪ শতাংশ) উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবিটিস, হৃদরোগ এবং কিডনির সমস্যা-সহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যখন কোনও করোনা আক্রান্ত সংকটজনক হৃদরোগী আপনাদের কাছে আসছেন, তখন প্রথমে তাঁর হৃদরোগের বিষয়টি দেখুন। পরে তাঁর করোনা সমস্যা দেখতে পারবেন।’

আগেও একাধিবার বেসরকারি হাসপাতালগুলিকে একই পরামর্শ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। গত ১৭ জুন নবান্নে বসেই তিনি বলেছিলেন, ‘করোনা রোগীর টেস্টের ফলাফলের জন্য অপেক্ষা না করে আগেই চিকিৎসা শুরু করে দিন। তাঁর যদি হার্টের বা অন্য কোনও রোগ থাকে, সেটা আগে স্টেবল করুন। তারপর যদি প্রয়োজন পড়ে কোভিডের চিকিৎসা করাবেন, টেস্ট করিয়ে নিন।’ তারপরও যে পরিস্থিতির কোনও বদল হয়নি, তা নিজেই স্বীকার করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

বন্ধ করুন