বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পুলিশকর্মীর মৃত্যুতে মন্তব্য, দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে এফআইআর ডায়মন্ড হারবার থানায়
বিজেপির সর্বভারতীয় সহসভাপতি দিলীপ ঘোষ (PTI)

পুলিশকর্মীর মৃত্যুতে মন্তব্য, দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে এফআইআর ডায়মন্ড হারবার থানায়

  • সম্প্রতি ডায়মন্ড হারবারে একটি পেট্রোল পাম্পের গা থেকে উদ্ধার হয় ডায়মন্ড হারবার থানার আর্মড ফোর্সের এএসআই সমীর দাসের মৃতদেহ। এই নিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য থড়িয়ে পড়ে। এই ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ জানিয়েছিল, দুর্ঘটনার জেরেই মৃত্যু হয়েছে পুলিশকর্মীর। যদিও তদন্ত এখনও চলছে।

রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে রোজই তিনি নানা কটাক্ষ করে থাকেন। মুখ্যমন্ত্রী এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেন। এবার তাঁর বিরুদ্ধে ডায়মন্ড হারবার থানায় এফআইআর দায়ের করা হল। হ্যাঁ, তিনি বিজেপির সাংসদ দিলীপ ঘোষ। এই এফআইআর–এর সঙ্গে সঙ্গে অবিলম্বে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

ঠিক কী বিষয়ে অভিযোগ? সম্প্রতি ডায়মন্ড হারবারে একটি পেট্রল পাম্পের গা থেকে উদ্ধার হয় ডায়মন্ড হারবার থানার আর্মড ফোর্সের এএসআই সমীর দাসের মৃতদেহ। এই নিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য থড়িয়ে পড়ে। এই ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ জানিয়েছিল, দুর্ঘটনার জেরেই মৃত্যু হয়েছে পুলিশকর্মীর। যদিও তদন্ত এখনও চলছে। আর এই পুলিশ কর্মীর মৃত্যু নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মন্তব্য করেছেন দিলীপ ঘোষ।

ঠিক কী মন্তব্য করেছিলেন বিজেপি সাংসদ?‌ সোশ্যাল মিডিয়ায় মেদিনীপুরের সাংসদ দাবি করেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজ্যে পুলিশও সুরক্ষিত নন। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই পুলিশের দ্বারস্থ হন ডায়মন্ড হারবারের বাসিন্দা অমিত সাহা। তদন্ত চলাকালীন কীভাবে একজন সাংসদ এমন মন্তব্য করলেন? প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। এই বিষয়টি নিয়ে ডায়মন্ড হারবার থানায় এফআইআর করেছেন টাউন তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি তথা পুরসভার কাউন্সিলর অমিত সাহা।

ভবানীপুর হত্যাকাণ্ড নিয়ে বলতে গিয়ে আজ, বুধবার বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘‌অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির কাছে এই ঘটনা ঘটেছে। তার বাড়িতে ১০০ পুলিশ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির সামনে ৫০ পুলিশ দাঁড়িয়ে থাকে। তাও এমন ঘটনা ঘটেছে। এরা বহিরাগত বলে কি বাঁচার অধিকার নেই? এতদিন বিজেপির লোককে মারা হতো। এখন পাবলিককে মারা হচ্ছে। ভাইপোর এলাকায় পেট্রল পাম্পে পুলিশের সাব–ইনস্পেক্টরকে খুন করে ফেলে রাখা হয়েছে। রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা বলে কিছু নেই।’‌

বন্ধ করুন