বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > জামুড়িয়ায় ইসিএলের চারটি ট্রান্সফর্মারে আগুন, বিদ্যুৎহীন ১০ হাজার মানুষ

জামুড়িয়ায় ইসিএলের চারটি ট্রান্সফর্মারে আগুন, বিদ্যুৎহীন ১০ হাজার মানুষ

অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে ছাই হয়ে গেল ইসিএলের চারটি বিদ্যুৎ সরবরাহকারী ট্রান্সফর্মার।

দমকলের পক্ষ থেকে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে যে শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগেছিল। স্থানীয় ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ডাঃ আরিফ আলি জানান, ইসিএলের ঊর্ধ্বতন কর্তারা কেউ এখনও এলাকায় এসে পৌঁছয়নি। ইসিএলের পক্ষ থেকেও এখনও কোনও বিবৃতি দেওয়া হয়নি। কীভাবে আগুন লাগল খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আবার সাতসকালে বিধ্বংসী আগুনের ঘটনা ঘটল বর্ধমানের জামুড়িয়ায়। একের পর এক ট্রান্সফর্মারে আগুন লেগে যাওয়ার ঘটনায় ছড়িয়ে পড়ল চাঞ্চল্য। রবিবার সকালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে ছাই হয়ে গেল ইসিএলের চারটি বিদ্যুৎ সরবরাহকারী ট্রান্সফর্মার। আর তার জেরে গোটা এলাকায় বিদ্যুৎ পরিষেবা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটেছে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, আজ, রবিবার পশ্চিম বর্ধমানের জামুড়িয়ায় চারটি ট্রান্সফর্মারে বিধ্বংসী আগুন লাগল। শ্রীপুর মাছবাজার এলাকায় একটি ট্রান্সফর্মারে আগুন লাগে। সেখান থেকে দ্রুত তা ছড়িয়ে পড়ে পাশের আরও তিনটি ট্রান্সফর্মারে। খবর দেওয়া হয় দমকলের দফতরে। এরপর দমকলের ২টি ইঞ্জিন এসে প্রায় দু’‌ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

তারপর ঠিক কী ঘটল?‌ জানা গিয়েছে, ওই ট্রান্সফর্মার দিয়ে জামুরিয়ার তিনপটিয়া, নিউ সেন্টার এবং স্টাফ কোয়ার্টার অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হতো। ট্রান্সফর্মার পুড়ে যাওয়ায় এলাকাগুলিতে বিদ্যুতের সমস্যা প্রকট হয়। ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েন এলাকায় বসবাসকারী প্রায় ১০ হাজার মানুষ। অন্ধকারে ডুবে যায় এলাকা। মানুষ গরমে কষ্ট পান।

কী তথ্য পাচ্ছে দমকল?‌ দমকল সূত্রে খবর, দমকলের পক্ষ থেকে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে যে শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগেছিল। স্থানীয় ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ডাঃ আরিফ আলি জানান, ইসিএলের ঊর্ধ্বতন কর্তারা কেউ এখনও এলাকায় এসে পৌঁছয়নি। ইসিএলের পক্ষ থেকেও এখনও কোনও বিবৃতি দেওয়া হয়নি। কীভাবে আগুন লাগল খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বন্ধ করুন