বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Marine Drive: সমুদ্র উপকূল বরাবর মেরিন ড্রাইভের কাজ চলছে জোর গতিতে, প্রথম সেতুর কাজ শেষের দিকে
তাজপুরে তৈরি হচ্ছে মেরিন ড্রাইভ। ফাইল ছবি।
তাজপুরে তৈরি হচ্ছে মেরিন ড্রাইভ। ফাইল ছবি।

Marine Drive: সমুদ্র উপকূল বরাবর মেরিন ড্রাইভের কাজ চলছে জোর গতিতে, প্রথম সেতুর কাজ শেষের দিকে

  • আরও বাকি দু'টি সেতু নভেম্বরের মধ্যেই সম্পন্ন করা হবে বলে পূর্ত দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। মূলত তাজপুর বন্দরকে পাখির চোখ করেই এই মেরিন ড্রাইভ করা হচ্ছে। এর ফলে বাংলার পর্যটন শিল্প আরও উন্নয়ন হবে বলে মনে করছে রাজ্য সরকার।

মুম্বইয়ের ধাঁচে বাংলায় সমুদ্রের পাড় বরাবর মেরিন ড্রাইভ তৈরির কাজ চলছে জোড় কদমে। এর ফলে তাজপুর থেকে সৈকত নগরী দীঘার বিভিন্ন জায়গায় মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই পৌঁছে যাওয়া সম্ভব হবে। তিনটি সেতুর মাধ্যমে জোড়া হচ্ছে মেরিন ড্রাইভ। যার মধ্যে প্রথম সেতু তৈরির কাজ প্রায় সম্পূর্ণ হয়ে গিয়েছে। খুব দ্রুতই এই সেতু উদ্বোধন করা হবে বলে জানা গিয়েছে। আরও বাকি দুটি সেতু নভেম্বরের মধ্যেই সম্পন্ন করা হবে বলে পূর্ত দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে। মূলত তাজপুর বন্দরকে পাখির চোখ করেই এই মেরিন ড্রাইভ করা হচ্ছে। এর ফলে বাংলার পর্যটন শিল্প আরও উন্নয়ন হবে বলে মনে করছে রাজ্য সরকার।

প্রায় ৮ বছর আগে দীঘা থেকে মন্দারমণি পর্যন্ত মেরিন ড্রাইভ নির্মাণের কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর ২০১৭ সালে তাজপুর, মন্দারমণি, শঙ্করপুরের সঙ্গে মেরিন ড্রাইভের মাধ্যমে দীঘাকে জুড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তারপরে দ্রুতগতিতে এই কাজ শুরু হয়ে যায়। তবে মাঝখানে প্রাকৃতিক দুর্যোগ এবং করোনার কারণে বেশ কিছুটা থমকে যায় কাজ। পূর্ব মেদিনীপুরের শৌলা থেকে জলদা, মন্দারমণি, তাজপুর হয়ে অল্প সময়ে দীঘা পৌঁছনো যাবে এই মেরিন ড্রাইভ ধরে। তিনটি উড়ালপুলের মাধ্যমে এই মেরিন ড্রাইভ জোড়া হবে। যার মধ্যে একটি থাকছে ন্যায়কালী এলাকায়। এছাড়াও জলদা এলাকায় এবং শৌলাতে পিছাবনী নদীর উপর আরও দু'টি সেতু তৈরি হবে।

দীঘা শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদ সূত্রে জানা গিয়েছে, ন্যায়খালী সেতুর কাজ প্রায় শেষ হয়ে গিয়েছে। এই সেতুর দৈর্ঘ্য ৩৮৭.৯৩ মিটার। বাকি দুটি সেতুর কাজ শেষ করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে চলতি বছরের নভেম্বরের মাসের মধ্যে। মেরিন ড্রাইভ সম্পন্ন হয়ে গেলে তাজপুর থেকে দীঘা পর্যন্ত ২০ কিলোমিটার রাস্তা আসা যায় মাত্র ৫ মিনিটেই।

বন্ধ করুন