বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > কেশপুরে ৫০০ জন বিজেপি নেতা–কর্মী তৃণমূলে যোগ দিলেন, সাফ গেরুয়া সংগঠন
বিজেপি ছেড়ে প্রায় ৫০০ জন কর্মী ও সমর্থক তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন।
বিজেপি ছেড়ে প্রায় ৫০০ জন কর্মী ও সমর্থক তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন।

কেশপুরে ৫০০ জন বিজেপি নেতা–কর্মী তৃণমূলে যোগ দিলেন, সাফ গেরুয়া সংগঠন

  • এদিন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়া কর্মীদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন কেশপুর তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা–নেত্রীরা।

একুশের নির্বাচনের পর বিজেপির প্রথম রাজ্য কমিটির বৈঠকের দিনই বড় ভাঙন ধরল সংগঠনে। মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশপুর ব্লকের ৯ নম্বর অঞ্চলের আনন্দপুরে বিজেপি ছেড়ে প্রায় ৫০০ জন কর্মী ও সমর্থক তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন। এদিন বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়া কর্মীদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন কেশপুর তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা–নেত্রীরা। সুতরাং পশ্চিম মেদিনীপুরের এই এলাকাতেও সাফ হয়ে গেল গেরুয়া শিবির।

এই কেন্দ্রের নবনির্বাচিত বিধায়ক তথা রাজ্যের পঞ্চায়েত দফতরের প্রতিমন্ত্রী শিউলি সাহা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কেশপুর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি উত্তমানন্দ ত্রিপাঠী, তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা ইমদাদুল ইসলাম সহ অন্যান্য তৃণমূল কংগ্রেসের নেতৃত্বরা। বিধানসভা নির্বাচনের ফলপ্রকাশ হওয়ার পর থেকেই সারা রাজ্যের পাশাপাশি পশ্চিম মেদিনীপুর জেলাজুড়ে বিজেপির ভাঙ্গন অব্যাহত রয়েছে। এবার তা ঘটল কেশপুরে।

বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের যোগ দেওয়া সকলের হাতে পতাকা তুলে দেওয়ার পর কেশপুরের বিধায়ক তথা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পঞ্চায়েত দফতরের প্রতিমন্ত্রী শিউলি সাহা বলেন, ‘‌আগামী দিনে কেশপুর বিধানসভা এলাকায় বিজেপিকে খুঁজে পাওয়া যাবে না। বিজেপি সম্প্রদায়িক দল মানুষকে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেয় এবং মানুষের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে। তাই বিধানসভা নির্বাচনের পর দলে দলে মানুষ ভুল বুঝতে পেরে বিজেপি দল ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করছেন।’‌ উল্লেখ্য, এই শিউলি সাহা মুকুল রায়ের ঘনিষ্ঠ বলেই পরিচিত।

বন্ধ করুন