বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পথকুকুরদের খাবার পরিযায়ী শ্রমিককে ধূপগুড়িতে, ভিডিয়ো ঘিরে সমালোচনার ঝড়
পথকুকুরদের খাবার পরিযায়ী শ্রমিককে ধূপগুড়িতে, ভিডিয়ো ঘিরে সমালোচনার ঝড়। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
পথকুকুরদের খাবার পরিযায়ী শ্রমিককে ধূপগুড়িতে, ভিডিয়ো ঘিরে সমালোচনার ঝড়। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)

পথকুকুরদের খাবার পরিযায়ী শ্রমিককে ধূপগুড়িতে, ভিডিয়ো ঘিরে সমালোচনার ঝড়

তাঁদের প্রশ্ন, ধূপগুড়ির কী এতটাই দুরাবস্থা যে পথকুকুরদের খাবার মানুষকে দিতে হচ্ছে?‌

‌পথকুকুরদের জন্য তৈরি খাবার পরিযায়ী শ্রমিককে খাওয়ানোর অভিযোগ উঠল একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার বিরুদ্ধে।ধূপগুড়ি শহরে এই ঘটনায় ইতিমধ্যে সমালোচনায় সরব হয়েছেন অনেকেই। তাঁদের প্রশ্ন, ধূপগুড়ির কি এতটাই দুরাবস্থা যে পথকুকুরদের খাবার মানুষকে দিতে হচ্ছে?‌

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে যায়।সেখানে দেখা গিয়েছে, অন্য রাজ্য থেকে আসা এক পরিযায়ী শ্রমিক খবরের কাগজের পাতা হাতে নিয়ে বসে আছেন। আর তাতে খাবার ঢেলে দিচ্ছেন এক ব্যক্তি। পরে জানা যায়,পথ কুকুরদের জন্য তৈরি খাবার খেতে দেওয়া হয়েছিল ওই পরিযায়ী শ্রমিককে।এই খবর জানাজানি হতেই শহরবাসীর একাংশ এর তীব্র প্রতিবাদ করেন।অনেকেই এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন।

তবে যে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এই কর্মসূচির সঙ্গে যুক্ত ছিল, তাঁদের সদস্যদের অবশ্য বক্তব্য ছিল, পথকুকুরদের জন্য খাবার তৈরি হলেও তা টাটকা খাবার ছিল।পরিযায়ী শ্রমিকের খিদে মেটাতেই সেই খাবার দেওয়া হয়েছিল। তবে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের এই কাজকর্ম নিয়ে সমালোচনার ঝড় কমেনি। এলাকার এক স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, ‘‌এটা কোনওভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।শহরের পরিস্থিতি এতটাই খারাপ হয়নি যে পশুদের খাবার দিতে হবে।ইতিমধ্যে বহু সংগঠনই এগিয়ে এসেছে যারা বিনামূল্যে মানুষের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছে।’‌ পাশাপাশি আরও এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্নধারের মতে, যারা এই কাজ করেছেন, তাঁরা হয়ত অজান্তেই এই কাজ করেছেন।অভুক্ত শ্রমিকদের জন্য খাবারের ব্যবস্থা করা উচিত ছিল।কারণ, ওটা কুকুরের খাবার।মানুষের জন্য আলাদা খাবারের ব্যবস্থা করা উচিত ছিল।

বন্ধ করুন