বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > চলার পথে বাসেই সস্তায় পুষ্টিকর খাবার, বিশেষ উদ্যোগ এসবিএসটিসি–র
দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার (‌এসবিএসটিসি)‌ বাস। ছবি : সংগৃহীত
দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার (‌এসবিএসটিসি)‌ বাস। ছবি : সংগৃহীত

চলার পথে বাসেই সস্তায় পুষ্টিকর খাবার, বিশেষ উদ্যোগ এসবিএসটিসি–র

  • করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে মাত্র ১৬ মিনিটে বিশেষ প্রযুক্তির সাহায্যে বাস ধোওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে দুর্গাপুর ডিপোতে।

লম্বা যাত্রাপথে কিছু খাবার কিনে ব্যাগে পুরেই দূরপাল্লার বাসে চাপতে হয় যাত্রীদের। নয়তো অপেক্ষা করতে হয় কোনও এক ধাবার সামনে বাস থামার। তবে এই চলার পথে বাসের মধ্যেই হাতের কাছে প্রয়োজন মতো সুস্বাদু খাবার পেলে কেমন হয়?‌ তাও কম দামে?‌ সেই ব্যবস্থাই এবার করতে চলেছে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা (‌এসবিএসটিসি)‌। রেলের ‘‌জন আহার’‌–এর মতো এবার বাসেও মিলবে খাবার।

বুধবার দুর্গাপুরে এক সাংবাদিক বৈঠকে এসবিএসটিসি–র চেয়ারম্যান দীপ্তাংশু চৌধুরি জানান, যাত্রীদের কথা ভেবে বাসেই এবার খাবারের প্যাকেট বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এসবিএসটিসি। দূরপাল্লার এই নীল–সাদা বাসে যে স্বাস্থ্যকর খাবারের প্যাকেট পাওয়া যাবে তার দাম রাখা হবে ২০ থেকে ৩০ টাকার মধ্যে। তবে কবে থেকে এই পরিষেবা মিলবে সে ব্যাপারে কিছু জানাননি দীপ্তাংশুবাবু।

পাশাপাশি এদিন তিনি জানান, করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে মাত্র ১৬ মিনিটে বিশেষ প্রযুক্তির সাহায্যে বাস ধোওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে দুর্গাপুর ডিপোতে। প্রথমে বিশাল শাওয়ারের নীচে ধোয়া হবে বাস, এর পর বাসের ধুলো ও আবর্জনা পরিষ্কার করা হবে ব্লোয়ারের সাহায্যে। করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে বিশেষভাবে পরিচ্ছন্ন করা হবে দরজা–জানালা। শেষে পুরো বাস স্যানিটাইজ করা হবে। দুর্গাপুর ডিপোতে চালু হওয়া এই ক্লিনিং সিস্টেম সফল হলে এসবিএসটিসি–র বাকি ডিপোতেও একইভাবে বাস পরিচ্ছন্ন করার ব্যবস্থা করা হবে। পাশাপাশি শক্তিগড়ে পিপিপি মডেলে বিশেষ শৌচালয় ব্লক প্রস্তুত করারও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানান এসবিএসটিসি–র চেয়ারম্যান দীপ্তাংশু চৌধুরি।

বন্ধ করুন