বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Zoo at Digha: দিঘায় বাড়তি আকর্ষণ! চিড়িয়াখানা করার পরিকল্পনা রাজ্যের, ছাড়পত্রের অপেক্ষা
দিঘায় চিড়িয়াখানা তৈরির পরিকল্পনা।  প্রতীকী ছবি।

Zoo at Digha: দিঘায় বাড়তি আকর্ষণ! চিড়িয়াখানা করার পরিকল্পনা রাজ্যের, ছাড়পত্রের অপেক্ষা

  • ১২ একর জমিতে এই চিড়িয়াখানা তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে রাজ্যের। কেন্দ্রীয় চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জু অথরিটির অনুমতি পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করছে রাজ্য সরকার। অনুমতি পেলেই সেখানে বাঘ, সিংহ, জেব্রা, জিরাফ প্রভৃতি বন্যপ্রাণী রাখা হবে। 

সৈকত নগরী দিঘা বরাবরই পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় স্থান। এবার পর্যটকদের আকর্ষণকে আরও বহুগুণে বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার। দিঘাতে ঘুরতে গেলে এবার সমুদ্র স্নানের পাশাপাশি চিড়িয়াখানাও দেখা যাবে। দিঘা স্টেশন থেকে কিছুটা দূরে যে ফাঁকা জমি রয়েছে সেখানে চিড়িয়াখানা তৈরির করার পরিকল্পনা করেছে বনদফতর। কেন্দ্রের অনুমতি মিললেই সেখানে চিড়িয়াখানা তৈরির কাজ শুরু করে দেবে রাজ্যের বনদফতর।

১২ একর জমিতে এই চিড়িয়াখানা তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে রাজ্যের। কেন্দ্রীয় চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জু অথরিটির অনুমতি পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করছে রাজ্য সরকার। অনুমতি পেলেই সেখানে বাঘ, সিংহ, জেব্রা, জিরাফ প্রভৃতি বন্যপ্রাণী রাখা হবে। এছাড়া সেখানে ছোট ক্লিনিক এবং রেস্টুরেন্ট করারও পরিকল্পনা রয়েছে রাজ্য সরকারের।

এ নিয়ে পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসক কুমার মাঝি কিছুদিন আগেই জানিয়েছিলেন, পর্যটকদের কাছে দিঘাকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে নিয়মিত কাজ করে চলেছে রাজ্য সরকার। উল্লেখ্য, গত কয়েক বছরে দিঘার আমূল পরিবর্তন হয়েছে। গত কয়েক বছরে দিঘাকে পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলতে বহু পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য সরকার। পুরীর জগন্নাথ দেবের মন্দিরের আদলে দীঘায় গড়ে তোলা হবে জগন্নাথ মন্দির। নিউ দিঘা স্টেশন লাগোয়া ভোগী ব্রহ্মপুর মৌজার বিস্তীর্ণ বালির উপরে এই মন্দির তৈরি করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

প্রসঙ্গত, দিঘায় চিড়িয়াখানা তৈরির পরিকল্পনা আগে থেকেই ছিল রাজ্য সরকারের। এতদিন ধরে জমি দেখার কাজ চলছিল। সেই জমি দেখা কার্য সম্পন্ন হয়েছে। পাশাপাশি, নিউ দিঘার হরিণালয়কেও বড় চিড়িয়াখানা করার পরিকল্পনা রয়েছে রাজ্যের। ইতিমধ্যেই সেখানে বাড়ানো হয়েছে পাখির সংখ্যা। পাশাপাশি সেখানে চারটি জিরাফ, জেব্রা আনা হবে বলেও শোনা যাচ্ছে। এর পাশাপাশি সেখানে দক্ষিণ আফ্রিকার বন্যপ্রাণী ব্ল্যাক প্যান্থার এবং রয়েল বেঙ্গল টাইগার রাখার পরিকল্পনা রয়েছে।

বন্ধ করুন