বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Hollong Bunglow fire: ষড়যন্ত্র করে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে হলং বাংলো? তদন্ত কমিটি গঠন বনমন্ত্রীর

Hollong Bunglow fire: ষড়যন্ত্র করে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে হলং বাংলো? তদন্ত কমিটি গঠন বনমন্ত্রীর

হলং বনবাংলোতে আগুন।

এই তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন মুখ্য বনপাল, ডিএফও, ওই বাংলো এলাকার ফরেস্ট রেঞ্জার-সহ একাধিক আধিকারিক। সল্টলেকে বন বিভাগের দফতরে ওই কমিটি বৈঠক করার পর আগামীকাল ঘটনাস্থলে খতিয়ে দেখতে যেতে পারে বলে জানা গিয়েছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের মধ্যে থাকা এই বাংলোটিতে আগুন লাগে।

মঙ্গলবার রাতে বিধ্বংসী আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে ডুয়ার্সের ঐতিহ্যবাহী হলং ফরেস্ট বাংলো। গত ১৫ জুন থেকে জঙ্গল বন্ধ থাকায় এই বাংলোতে কোনও পর্যটক ছিলেন না। তা সত্ত্বেও কীভাবে আগুন লাগল এই বাংলোয়? তা নিয়ে ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এই অবস্থায় এটি আদৌও কোনও দুর্ঘটনা নাকি ষড়যন্ত্র, তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হল। বনমন্ত্রী বীরবাহা হাঁসদা এই তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। 

আরও পড়ুন: পুড়ে ছাই হয়ে গেল জলদাপাড়ার হলং বনবাংলো, বিধ্বংসী আগুনে সব শেষ

জানা যাচ্ছে, এই তদন্ত কমিটিতে রয়েছেন মুখ্য বনপাল, ডিএফও, ওই বাংলো এলাকার ফরেস্ট রেঞ্জার-সহ একাধিক আধিকারিক। সল্টলেকে বন দফতরে ওই কমিটি বৈঠক করার পর আগামিকাল ঘটনাস্থলে খতিয়ে দেখতে যেতে পারে বলে জানা গিয়েছে। 

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের মধ্যে থাকা এই বাংলোটিতে আগুন লাগে। তাতে বাংলোটি সম্পূর্ণভাবে ভস্মীভূত হয়ে গিয়েছে। দমকলের দুটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। কিন্তু কাজ হয়নি। বাংলোটি শেষ পর্যন্ত পুড়ে ছাই হয়ে যায়। প্রাথমিকভাবে দমকলের অনুমান, এসি মেশিন থেকে শর্ট সার্কিটের ফলে আগুন লেগেছে। তবে ১৫ জুন থেকে জঙ্গল বন্ধ থাকায় এবার বাংলোটিতে কোনও পর্যটক ছিল না। ফলে আগুন লাগার কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৯৬৭ সালে মাদারিহাটের জলদাপাড়া জঙ্গলে কাঠের এই বাংলোটি নির্মাণ করা হয়েছিল। বিভিন্ন বন্য পশু-পাখি কাছ থেকে দেখতে দেশ-বিদেশের পর্যটকদের কাছে এই বন বাংলোটি খুবই জনপ্রিয় ছিল। প্রায় ৬৭ বছর ধরে বহু পর্যটক জঙ্গলের নীরবতায় কিছু সময় কাটাতে এই বাংলোতে এসেছেন। বাংলো পুড়ে যাওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছে পর্যটক মহল।

বনমন্ত্রী জানিয়েছেন, অনেকেই এই ঘটনার জন্য বনকর্মীদের উপর দায় চাপাচ্ছেন। তবে এর পিছনে আসল কী কারণ, তা খতিয়ে দেখা দরকার। উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন ধরে উত্তরবঙ্গে বৃষ্টি চলছে। মঙ্গলবারও দিনভর বৃষ্টি হয়েছে। তাছাড়া কর্মীরা জানাচ্ছেন, যে লোডশেডিং ছিল। সেক্ষেত্রে শর্ট সার্কিট হয়েছিল কিনা, বৃষ্টির মধ্যেও কীভাবে গোটা বাংলো পুড়ে ছাই হয়ে গেল, তাই নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। তাই এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বাংলার মুখ খবর

Latest News

বাজেটে মন্ত্রী, সচিবদের ব্যয় কমানো হলেও, বাড়ল প্রধানমন্ত্রীর অফিসের জন্য বরাদ্দ আগামিকাল কেমন কাটবে? আপনার জন্য অপেক্ষায় কি ভালো দিন? জানুন ২৪ জুলাইয়ের রাশিফল ইন্টারনেট ফিরল বাংলাদেশের ২ এলাকায়, ফেসবুক হবে? বাড়ল কারফিউয়ের মেয়াদ, কখন ছাড়? ছোট পরমাণু রিঅ্যাক্টর, শক্তিশালী থার্মাল প্ল্যান্ট নিয়ে কী বললেন নির্মলা? ভারতীয় ক্রিকেটে গম্ভীর যুগের শুরু, তবু KKR-কে ছাড়তে পারছেন না সূর্যদের নতুন কোচ এবারের বাজেট কেন ভালো? দেশ কতটা এগোবে? ৯টা পয়েন্ট নিয়ে হাজির শুভেন্দু নীতি আয়োগের বৈঠক বয়কট করছেন এমকে স্ট্যালিন, কেন এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নিলেন?‌‌ ‘অন্য মেয়ে ঘর করলে বুঝত…', যিশুর বউ হওয়া সহজ নয়! গোপন কথা ফাঁস করেন নীলাঞ্জনা রাহুলকে ব্যান করায় ফুঁসছে টলিউড, জট কাটাতে কবে বৈঠকে বসছেন পরিচালকরা? দাদা-বউদির বিয়ের পরই কলকাতা ছাড়লেন দীপ্সিতা, শোভন-সোহিনীও কি সঙ্গে গেলেন?

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.