বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > চল এখান থেকে! লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে কাটমানি? অভিযুক্তের কলার ধরলেন প্রাক্তন মন্ত্রী
অভিযুক্ত যুবককে আঙুল তুলে হুঁশিয়ারি গৌতম দেবের  (নিজস্ব চিত্র )
অভিযুক্ত যুবককে আঙুল তুলে হুঁশিয়ারি গৌতম দেবের  (নিজস্ব চিত্র )

চল এখান থেকে! লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে কাটমানি? অভিযুক্তের কলার ধরলেন প্রাক্তন মন্ত্রী

  • দুর্গাপুজোর অষ্টমীর ভিড়কেও হার মানাচ্ছে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদনকারীদের ভিড়।

একেবারে গিজগিজ করছে ভিড়। দুর্গাপুজোর অষ্টমীর ভিড়কেও হার মানাচ্ছে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদনকারীদের ভিড়। আর সেই প্রকল্পের ফর্ম ফিল আপ করে দেওয়ার বিনিময়ে টাকা নেওয়ার অভিযোগ। প্রশ্ন উঠছে তবে কি লক্ষ্মীর ভাণ্ডারেও কাটমানি? অভিযোগ শিলিগুড়িতে বৃহস্পতিবার রীতিমতো টেবিল, চেয়ার পেতে ফর্ম পূরণ করে দিচ্ছিলেন এক যুবক। তার বিনিময়ে প্রতি মহিলার কাছ থেকে টাকা নিচ্ছিলেন বলে অভিযোগ। 

 

হেল্প ডেস্ক থাকা সত্ত্বেও অনেকেই তাড়াহুড়োতে টাকা দিয়েই ফর্ম ফিল আপ করতে চান। শিলিগুড়ির হায়দারপাড়ার ওই ক্যাম্পে যান প্রাক্তন মন্ত্রী তথা পুরসভার প্রশাসক গৌতম দেব। তাঁর নজরে পড়ে ঘটনাটি। এদিকে এভাবে টাকা নিতে দেখে কার্যত মেজাজ হারান তিনি। অভিযুক্ত যুবককে তিনি নিজেই ধরে ফেলেন। ‘চল এখান থেকে’ বলে কড়়া মেজাজ দেখান তিনি। 

 

কার্যত কলার ধরে তিনি ওই যুবককে পুলিশের হাতে তুলে দেন। এদিকে হায়দারপাড়ার শিবিরে এদিন বৃষ্টি মাথায় করে ফর্ম জমা দেওয়ার লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন মহিলারা। ভিড় সামাল দিতে হিমসিম খেতে হয় পুলিশকে। কে আগে ফর্ম জমা দিতে পারবেন তারই কার্যত প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে যায়। এদিকে করোনা অতিমারির মধ্যে এই ভিড়কে কেন্দ্র করে নতুন করে উদ্বেগ ছড়িয়েছে। প্রাক্তন মন্ত্রী গৌতম দেব বলেন, 'সব জায়গায় যাচ্ছি। সব ব্যবস্থা হয়তো করা যায়নি। তবুও মানুষকে পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে। বৃষ্টির মধ্যেই ঘুরছি। বড় অফিসাররাও রয়েছেন। তবে টাকা নেওয়ার ঘটনা দুর্ভাগ্যজনক।'

 

বন্ধ করুন