বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Love story: প্রেমের জোয়ারে ভেসে প্যারিস থেকে হুগলিতে তরুণী, যুবকের পরিবারের সঙ্গেই থাকছেন
প্রেমের টানে প্যারিস থেকে হুগলিতে তরুণী। প্রতীকী ছবি

Love story: প্রেমের জোয়ারে ভেসে প্যারিস থেকে হুগলিতে তরুণী, যুবকের পরিবারের সঙ্গেই থাকছেন

  • প্যাট্রিসিয়ার সঙ্গে পান্ডুয়ার সারদাপল্লীর বাসিন্দা কুন্তল ভট্টাচার্যের পরিচয় হয়েছিল একটি সামাজিক মাধ্যমে। দিল্লিতে চাকরি সূত্রে কুন্তলের সঙ্গে ওই তরুণীর যোগাযোগ হয়েছিল সামাজিক মাধ্যমে। এর পরেই তাদের মধ্যে শুরু হয় কথাবার্তা, ভিডিয়ো কলিং। সম্পর্ক ক্রমে এগোতে থাকে। গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক।

প্রেম কোনও সীমানার বেড়াজাল মানে না, প্রেমের কোন ভাষাও হয় না। বিদেশিনীর প্রেমে পড়া নতুন কিছু নয়। অতীতে বিভিন্ন বিদেশিনীকে প্রেমের টানে ভারতে আসতে দেখা গিয়েছে। এবার প্রেমের টানে হুগলির পান্ডুয়াতে এসে হাজির হলেন প্যারিসের তরুণী। এখন পান্ডুয়ার ওই যুবকের সঙ্গে আপাতত সেখানেই রয়েছেন প্যারিসের ওই তরুণী প্যাট্রিসিয়ার বারোটা।

প্যাট্রিসিয়ার সঙ্গে পান্ডুয়ার সারদাপল্লীর বাসিন্দা কুন্তল ভট্টাচার্যের পরিচয় হয়েছিল একটি সামাজিক মাধ্যমে। দিল্লিতে চাকরি সূত্রে কুন্তলের সঙ্গে ওই তরুণীর যোগাযোগ হয়েছিল সামাজিক মাধ্যমে। এর পরেই তাদের মধ্যে শুরু হয় কথাবার্তা, ভিডিয়ো কলিং। সম্পর্ক ক্রমে এগতে থাকে। গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। প্যাট্রিসিয়ার ভারতে আসার জন্য কথা দিয়েছিল কুন্তলকে। সেইমতো গত ১৩ জুলাই দিল্লি আসেন প্যাট্রিসিয়ার। দিল্লিতে এসে রীতিমতো চমকে দিয়ে কুন্তলকে ফোন করেন তিনি। সেখান থেকে বিমানবন্দরে করে আসেন কলকাতা। পরে সেখান থেকে হাওড়ায় এবং সেখান থেকে বাসে করে আসেন পান্ডুয়া। সামাজিক নিয়ম মেনে এখনও তারা একে অপর সঙ্গে বিয়ে করেননি। তবে লিভ ইন করছেন।

দুজনের ভাষায় হয়তো কোনও মিল নেই। কিন্তু মনের ভাব একই। যার ফলে তাদের একে অপরের সঙ্গে থাকতে কোনও অসুবিধা হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন কুন্তল। বিয়ে না হলেও বিদেশিনীকে বউ কেউ মেনে নিয়েছে পান্ডুয়ার ওই যুবকের পরিবার। হয়তো পরিবারের লোকেদের কথা ঠিকমত বুঝতে পারছেন না ওই তরুণী। তবে তাদের মধ্যে ভাব বিনিময়ে সাহায্য করছে কুন্তল। ওই যুবক দিল্লিতে কাজ করলেও বর্তমানে হুগলিতে নিজের ব্যবসা শুরু করেছেন।

বন্ধ করুন