বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সদ্যোজাত ছাগলের যত্নে সিভিক ভলান্টিয়ার, মালিকের খোঁজে হন্যে ভাতার থানার পুলিশ
ছাগলের যত্নআত্তি। ভাতার থানায়। ছবি : সংগৃহীত
ছাগলের যত্নআত্তি। ভাতার থানায়। ছবি : সংগৃহীত

সদ্যোজাত ছাগলের যত্নে সিভিক ভলান্টিয়ার, মালিকের খোঁজে হন্যে ভাতার থানার পুলিশ

  • থানার এক আধিকারিক বলেন, ‘‌ওদের মালিকের খোঁজ শুরু হয়েছে। যথেষ্ট প্রমাণ দেখিয়ে ছাগলগুলিকে তিনি ফিরিয়ে নিয়ে যাক, এটাই আমরা চাই।’‌

চরম সমস্যায় পড়েছেন বর্ধমানের ভাতার থানার পুলিশকর্মীরা। না, কোনও কেস বা আসামীকে নিয়ে নয়, সমস্যা দেখা দিয়েছে একদল ছাগলকে নিয়ে। সপ্তাহখানেক ধরে যাদের আশ্রয় ওই থানাতেই। তারই মধ্যে সমস্যা বাড়িয়েছে একটি মা ছাগল। বুধবার থানাতেই সে দুটি সন্তানের জন্ম দিয়েছে। আর সদ্যোজাতদের দেখভালের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দুই সিভিক ভলান্টিয়ারকে।

ঘটনার সূত্রপাত ৬ দিন আগে। ওদিন রাতে টহল দেওয়ার সময় ৪টি ছাগলকে বলগোনা বাজারে ঘোরাফেরা করতে দেখেন পুলিশকর্মীরা। কয়েকদিন ধরেই ভাতার জুড়ে ছাগল চুরির অনেক ঘটনা ঘটেছে। সেই অভিযোগও পেয়েছে পুলিশ। তাই সে সময় ওই ছাগলগুলির মালিকের দেখা না পেয়ে ওদের ভাতার থানায় নিয়ে আসেন পুলিশকর্মীরা। তার পর থেকে তাদের জন্য পাতা, গাছের ডাল, জল— সব কিছুরই জোগান দিচ্ছেন তাঁরা।

কিন্তু সমস্যা বেড়েছে আরও ২ ছাগলের জন্মের পর। সদ্য মা হওয়া ওই ছাগল ও তার শিশুদের যত্নআত্তিতে কোনও খামতি রাখতে চাইছেন না পুলিশকর্মীরা। কিন্তু তাঁদের তো আরও অনেক কাজ রয়েছে। তাই মোট ৬টি ছাগল নিয়ে রীতিমতো লেজেগোবরে অবস্থা ভাতার থানার পুলিশের। থানার এক আধিকারিক বলেন, ‘‌ওই ছাগলগুলিকে খাওয়াতে আর যত্ন নিতে নিতে আমরা এখন রীতিমতো ক্লান্ত। তাই ওদের মালিকের খোঁজ শুরু হয়েছে। যথেষ্ট প্রমাণ দেখিয়ে ছাগলগুলিকে তিনি ফিরিয়ে নিয়ে যাক, এটাই আমরা চাই।’‌ আসামী, চোর–ডাকাত ছেড়ে এখন ওই ছাগলগুলির মালিকের খোঁজে হন্যে হয়ে ঘুরছে ভাতার থানার পুলিশ।

বন্ধ করুন