প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

এবার কন্যাশ্রীতেও কাটমানি চাওয়ার অভিযোগ তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে, BDO-র কাছে নালিশ

  • পল্লবীর কাছে কাটমানি চান দীপঙ্কবাবু। বলেন, ১০০ দিনের কাজ করে তাঁর বাবা – মা যে টাকা পেয়েছেন তা পাঠিয়ে দিতে হবে তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে।

ফের কাটমানি চাওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। এবার খাস অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের লোকসভা কেন্দ্রে ছাত্রীর কাছে কাটমানি চাওয়ার অভিযোগ করেছেন এক ছাত্রী। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুরের রসখালি পঞ্চায়েতের দমদমার পল্লবী নস্কর বিষ্ণুপুরের বিডিওর কাছে কাটমানি চাওয়ার লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন। অভিযুক্ত স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য দীপঙ্কর নস্কর।

পল্লবীর দাবি, সম্প্রতি কন্যাশ্রীর ২৫,০০০ টাকার জন্য আবেদন করেন তিনি। আধিকারিকরা তাঁকে জানান, ‘অবিবাহিত প্রমাণপত্র’ জমা দিলে মিলবে টাকা। সেই মতো নথি চাইতে তিনি রসখালি পঞ্চায়েতের প্রধানের কাছে যান। প্রধান জানান ওই নথি দিতে পারেন একমাত্র স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য। এর পর দিদিকে নিয়ে পঞ্চায়েত সদস্য দীপঙ্কর নস্করের বাড়িতে হানা যান তিনি।

অভিযোগ, সেখানে পল্লবীর কাছে কাটমানি চান দীপঙ্কবাবু। বলেন, ১০০ দিনের কাজ করে তাঁর বাবা – মা যে টাকা পেয়েছেন তা পাঠিয়ে দিতে হবে তাঁর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে। শুনে অবাক হয়ে যান পল্লবী। এর পর দীপঙ্কর নস্কর ও তাঁর স্ত্রী মিলে ওই তরুণীকে গালিগালাজ করেন বলেও অভিযোগ।

অভিযোগ অস্বীকার করেছেন দীপঙ্কর নস্কর। তিনি বলেন, ১০০ দিনের টাকা পেতে দেরি হয় বলে জমি বন্ধক রেখে সবার টাকা মিটিয়েছি। তার মধ্যে ওই মেয়েটির পরিবারও রয়েছে। উপভোক্তারা ১০০ দিনের টাকা সরকার থেকে পেলে সেই টাকা আমার হাতে তুলে দেওয়ার কথা। সেকথাই বলেছি মেয়েটিকে। টাকা পয়সা কিছু চাইনি।

কিন্তু প্রশ্ন উঠছে, লেনদেনের শর্ত না থাকলে কেন এখনও ‘অবিবাহিত প্রমাণপত্র’ পেলেন না ওই তরুণী?


বন্ধ করুন