বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > পুলিশ প্রশাসনের শীর্ষ কর্তাদের জরুরি বৈঠক, উত্তরবঙ্গে আন্দোলন ঠেকাতে কৌশল
উত্তরবঙ্গকে নিয়ে পুলিশের বৈঠক। ছবি সৌজন্য–এএনআই।
উত্তরবঙ্গকে নিয়ে পুলিশের বৈঠক। ছবি সৌজন্য–এএনআই।

পুলিশ প্রশাসনের শীর্ষ কর্তাদের জরুরি বৈঠক, উত্তরবঙ্গে আন্দোলন ঠেকাতে কৌশল

  • আর তাই উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলার পুলিশ সুপার, শিলিগুড়ির পুলিশ কমিশনার এবং গোয়েন্দা বিভাগের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করলেন এডিজি আইবি নীরজ কুমার সিং।

বিজেপি সাংসদ জন বারলা পৃথক উত্তরবঙ্গের দাবি আগেই তুলেছিলেন। তবে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের ধাতানিতে বারলা কিছুটা সুর নরম করলেও নিজের অবস্থানে এখনও অটল। তলে তলে অন্য কোনও পরিকল্পনা করা হচ্ছে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ দানা বেঁধেছে। আর তাই উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলার পুলিশ সুপার, শিলিগুড়ির পুলিশ কমিশনার এবং গোয়েন্দা বিভাগের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করলেন এডিজি আইবি নীরজ কুমার সিং। তিনি সদা সতর্ক থাকতে নির্দেশ দিয়েছেন।

উত্তরবঙ্গে আর কোনও গোলমাল চান না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনেক কষ্টে উত্তরবঙ্গে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ফেরানো হয়েছে। সেই বার্তা পুলিশ–প্রশাসনকেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, এই বৈঠকে উত্তরবঙ্গকে পৃথক রাজ্যের দাবিকে সামনে রেখে করা হয়েছিল। কোনওরকম আন্দোলন হলে তা কীভাবে সামাল দেওয়া হবে তা নিয়েই বৈঠক হয়। এখন পৃথক উত্তরবঙ্গের দাবিকে কেন্দ্র করে আন্দোলন পরিস্থিতি কেমন, তার পর্যালোচনা করেন এডিজি আইবি নীরজ কুমার সিং। কেএলও জঙ্গি সংগঠন মাথাচাড়া দিলে কিভাবে সামাল দেওয়া হবে তা নিয়েও আলোচনা হয়।

উল্লেখ্য, এই পরিস্থিতির মধ্যেই জন বারলার বাড়িতে গিয়ে দেখা করে কামতাপুর পিপলস পার্টির (ইউনাইটেড) প্রতিনিধিরা। জন বারলা দাবি করেছেন, সংবিধান অনুযায়ীই কেন্দ্রের কাছে তিনি জানাবেন। এদিনের পদস্থ পুলিশ কর্তাদের বৈঠক তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ এই বৈঠকের পরই নানা সিদ্ধান্ত নিতে শুরু করেছে পুলিশ–প্রশাসন। বিভিন্ন এলাকায় নিরাপত্তা আরও শক্তিশালী করা হয়েছে। সম্প্রতি কেএলও চিফ জীবন সিংহের একাধিক ভিডিও সামনে এসেছে। ফলে এসব নিয়ে গোয়েন্দা বিভাগকে অতি সক্রিয় থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বন্ধ করুন