বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিজেপির হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে লেফট হলেন বিধায়ক হিরণ, অন্তর্কলহ চরমে
হিরণ চট্টোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক @ActorHiraan)
হিরণ চট্টোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য ফেসবুক @ActorHiraan)

বিজেপির হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে লেফট হলেন বিধায়ক হিরণ, অন্তর্কলহ চরমে

  • জানা গিয়েছে, তিনি দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন।

রাজ্য বিজেপির অন্দরে ফের অন্তর্কলহ। শান্তনু ঠাকুর, সুব্রত ঠাকুরদের পথে হেঁটে এবার দলের অফিসিয়াল হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়লেন বিজেপি বিধায়ক হিরণ চট্টোপাধ্যায়। ‘মতুয়া–বিদ্রোহ’–এর মধ্যেই দলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়লেন খড়্গপুরের বিধায়ক। বুধবার সকালে তা প্রকাশ্যে এলো। তবে তিনি এই গ্রুপ ত্যাগ করেছেন মঙ্গলবার বেশি রাতেই। এই অভিনেতা আগে তৃণমূল কংগ্রেসে ছিলেন। পরে বিজেপিতে যোগ দেন। এমনকী বিধানসভা নির্বাচনে তিনি খড়্গপুর থেকে জয়ী হন।

জানা গিয়েছে, তিনি দলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ–সভাপতি তথা খড়গপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের অবনতি হয়েছিল বলে বেশ কিছুদিন আগে থেকে শুনতে পাওয়া যায়। তবে তিনি ফের তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরবেন কিনা সে বিষয়ে কোথাও কিছু স্পষ্ট করেননি।

এই বিষয়ে বিজেপির পরিষদীয় নেতা মনোজ টিগ্গা সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‌আমি বিষয়টি জানি না। তবে কেন তিনি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়লেন তা জিজ্ঞাসা করা হবে। সমস্যা জানার চেষ্টা হবে।’‌ সুকান্ত মজুমদার রাজ্য সভাপতি হওয়ার পর নয়া রাজ্য কমিটি এবং জেলা কমিটি তৈরি করেন। তারপর থেকেই এই সমস্যা তৈরি হয়েছে। আর দেখা যাচ্ছে একের পর এক নেতারা হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে দিচ্ছেন।

ইতিমধ্যেই পাঁচ মতুয়া বিধায়ক বিজেপির হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন। এবার সেই পথেই হাঁটলেন হিরণ চট্টোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে স্থানীয় নেতৃত্বের একাংশের সমস্যা তৈরি হয়েছিল বলে সূত্রের খবর। তার জেরেই দলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়লেন বলে মনে করা হচ্ছে। এই নিয়ে বিজেপির অন্দরে জোর চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে।

সূত্রের খবর, শান্তনু–সহ মতুয়া বিধায়কদের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নড্ডা। তিনি নিজে রাজ্যে আসছেনও এই সমস্যা মেটাতে। তাই তিনি ঘরোয়া বৈঠকে বেশি ব্যস্ত থাকবেন। কিন্তু তার মধ্যেই হিরণের গ্রুপ ছাড়লেন। এই পরিস্থিতির পরিবর্তন নড্ডা করতে পারবেন কিনা এখন সেটাই দেখার।

বন্ধ করুন