বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > খানাকুলে প্লাবিত একাধিক গ্রাম, পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন জেলাশাসক
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

খানাকুলে প্লাবিত একাধিক গ্রাম, পরিস্থিতি খতিয়ে দেখলেন জেলাশাসক

  • তিনি জানান, খানাকুলের বন্যাপরিস্থির ওপর প্রশাসনের কড়া নজর রয়েছে। প্লাবিত এলাকার বাসিন্দাদের বন্যাত্রাণ কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।

বর্ষার শেষলগ্নে নিয়ম করে প্লাবিত হুগলির খানাকুল ২ নম্বর ব্লকের বিস্তীর্ণ এলাকা। লাগাতার বৃষ্টিতে দফায় দফায় জল ছাড়তে ডিভিসি। সেই জলেই ফুঁসছে দামোদর, দ্বারকেশ্বর ও রূপনারায়ণ। যার জেরে জলের তলায় আরামবাগ মহকুমার বিস্তীর্ণ এলাকা। রাস্তাঘাট জলের তলায় চলে যাওয়ায় গাড়ি নয়, যাতায়াতে এখন সহায় নৌকা। বুধবার এলাকাগুলি পরিদর্শন করেন হুগলির জেলাশাসক রত্নাকর রাও।

খানাকুল, পুরশুড়া, মায়াপুর, চাঁপাডাঙা-সহ একাধিক এলাকা এখন জলের তলায়। রূপনারায়ণের জলে প্লাবিত খানাকুল ২ নম্বর ব্লকের অন্তত ৫টি পঞ্চায়েত। এর মধ্যে জগৎপুর, ধ্যাননগরী, মাড়োখানা ও রাজহাটির পরিস্থিতি সব থেকে খারাপ। এলাকায় একাধিক রাস্তার ওপর দিয়ে বইছে জল। ফলে যাতায়াতের জন্য নৌকা ব্যবহার করছেন স্থানীয়রা। 

বুধবার এলাকা ঘুরে দেখেন হুগলির জেলাশাসক রত্নাকর রাও। ড্রোন উড়িয়ে বন্যাপরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন তিনি। এর পর তিনি জানান, খানাকুলের বন্যাপরিস্থির ওপর প্রশাসনের কড়া নজর রয়েছে। প্লাবিত এলাকার বাসিন্দাদের বন্যাত্রাণ কেন্দ্রে রাখা হয়েছে। 

 

বন্ধ করুন