বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বড়দিন এবং বছর শেষে কি জাঁকিয়ে পড়বে শীত? পূর্বাভাস আবহওয়া দফতরের
বড়দিন উপলক্ষ্যে সেজে উঠেছে পার্কস্ট্রিট। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
বড়দিন উপলক্ষ্যে সেজে উঠেছে পার্কস্ট্রিট। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

বড়দিন এবং বছর শেষে কি জাঁকিয়ে পড়বে শীত? পূর্বাভাস আবহওয়া দফতরের

  • দক্ষিণবঙ্গের অধিকাংশ জায়গায় তাপমাত্রা ১০-১২ ডিগ্রির মধ্যে ঘোরাফেরা করছে।

কয়েকদিন টি-টোয়েন্টির মেজাজে ব্যাটিংয়ের পর কিছুটা ছন্দ হারিয়ে ফেলল শীত। বৃহস্পতিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা একধাক্কায় ১.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়ল। তা সত্ত্বেও বড়দিনে দক্ষিণবঙ্গ-সহ পুরো রাজ্যেই ভালোমতো শীত মালুম হবে। বছরের শেষেও জাঁকিয়ে শীত পড়ার পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, বৃহ্স্পতিবার কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বুধবারও শীতের প্রকোপ কিছুটা কমেছিল। জেলার বিভিন্ন প্রান্তে পারদ কিছুটা বেড়েছে। কালিম্পঙে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৭.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াম, পানাগড়ে তা ছিল ৯.৪ ডিগ্রি, পুরুলিয়ায় ছিল ১২ ডিগ্রি, শিলিগুড়িতে ছিল ৮.৯ ডিগ্রি। দক্ষিণবঙ্গের অধিকাংশ জায়গায় তাপমাত্রা ১০-১২ ডিগ্রির মধ্যে ঘোরাফেরা করছে। দার্জিলিঙের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

কেমন থাকবে বড়দিনের আবহাওয়া?

বড়দিনে নতুন করে তাপমাত্রার পারদ নামবে না। তবে শীতের প্রকোপ নেহাত কম থাকবে না। কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রির নীচেই থাকবে। আগামী দু'দিন অবশ্য কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে সকাল এবং সন্ধ্যার দিকে ঘন কুয়াশার দাপট থাকবে।

বর্ষশেষের আবহাওয়া কেমন হবে?

হাওয়া অফিস জানিয়েছে, জম্মু ও কাশ্মীরে একটি পশ্চিমী ঝঞ্জা প্রবেশ করতে পারে। তার প্রভাবে জম্মু ও কাশ্মীর, হিমাচল প্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডে তুষারপাত হতে পারে। তার প্রভাব পড়বে বঙ্গেও। তুষারপাতের ফলে সপ্তাহান্তে এবং বর্ষশেষে বঙ্গের পারদ আরও নামতে পারে। তার ফলে বড়দিনের থেকেই সেই সময় আরও জাঁকিয়ে পড়তে পারে শীত।

বন্ধ করুন