বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > HS Exam 2021: এবার বাড়িতে দিতে হবে উচ্চ মাধ্যমিক? কমিটির রিপোর্ট সম্ভবত আজ
সম্ভবত বাতিল হচ্ছে না উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা : সূত্র (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
সম্ভবত বাতিল হচ্ছে না উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা : সূত্র (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)

HS Exam 2021: এবার বাড়িতে দিতে হবে উচ্চ মাধ্যমিক? কমিটির রিপোর্ট সম্ভবত আজ

  • সম্ভবত বাতিল হচ্ছে না পরীক্ষা। সূত্রের খবর এমনটাই।

সম্ভবত বাতিল হচ্ছে না পরীক্ষা। তবে পরীক্ষাকেন্দ্রেও যেতে হবে না। বরং বাড়িতে বসেই উচ্চ মাধ্যমিক দেওয়ার প্রস্তাব জমা পড়েছে বিশেষজ্ঞ কমিটির কাছে। সূত্র উদ্ধৃত করে এমনটাই জানিয়েছে নিউজ ১৮ বাংলা।

বুধবার এবং বৃহস্পতিবার ইতিমধ্যে দু'দফায় আলোচনা করেছে বিশেষজ্ঞ কমিটি। ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, বৈঠকে উচ্চশিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস প্রস্তাব রেখেছেন যে উচ্চ মাধ্যমিক পড়ুয়াদের বাড়িতেই প্রশ্নপত্র পাঠিয়ে পরীক্ষা নেওয়া হোক। সেক্ষেত্রে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে পড়ুয়াদের ঝুঁকি থাকবে না। আবার পরীক্ষাও নেওয়া হবে। 

যদিও প্রশ্ন উঠছে, সব পড়ুয়াদের বাড়িতে কীভাবে প্রশ্নপত্র পাঠানো হবে। এবার রাজ্যে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ন'লাখ। সেক্ষেত্রে সশরীরে সকলের কাছে প্রশ্ন পৌঁছে দেওয়া দুঃসাধ্য বিষয়। আবার অনলাইনেও প্রশ্ন পাঠালেও সকলে পাবেন কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন আছে। রাজ্য সরকারের তরফে অবশ্য দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের ট্যাব বা স্মার্টফোন কেনার টাকা দেওয়া হয়েছে। তবে একাংশের বক্তব্য, একটি বিকল্প হতে পারে যে স্কুলগুলিতে প্রশ্নপত্র পাঠিয়ে দেওয়া হবে। সেখান থেকে পড়ুয়ারা প্রশ্নপত্র সংগ্রহ করতে পারেন।

কিন্তু সিবিএসই-সহ দেশের বিভিন্ন রাজ্যের বোর্ড দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা বাতিল করে দিয়েছে, সেখানে উচ্চ মাধ্যমিক নেওয়ার উপর কেন জোর দেওয়া হচ্ছে? ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, সংসদের তরফে যুক্তি দেওয়া হচ্ছে যে ইতিমধ্যে দ্বাদশ শ্রেণির প্র্যাক্টিকাল পরীক্ষার নম্বর জমা পড়ে গিয়েছে। সেক্ষেত্রে কম নম্বরেও একটা লিখিত পরীক্ষা নেওয়া উচিত। সেক্ষেত্রে পরীক্ষা আরও পিছিয়ে দেওয়া যেতে পারে। পুজোর পরেও সংসদ ফলপ্রকাশ করতে রাজি আছে বলে ওই প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। 

সূত্রের খবর, শিক্ষা দফতরের বেঁধে যাওয়া সময়ের মধ্যেই তথা আজ (শুক্রবার) রিপোর্ট জমা দিতে চলেছে বিশেষজ্ঞ কমিটি। সেখানে সংসদের প্রস্তাবও থাকতে পারে বলে সূত্রের খবর। তবে চূড়ান্ত নেবে রাজ্য সরকার।

বন্ধ করুন